বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ভিসা প্রক্রিয়া সহজীকরণের জন্য স্পেন সরকারকে অনুরোধ বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের

আপডেট : ২১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩:৩১

বাংলাদেশি নাগরিকদের ভিসা প্রক্রিয়া সহজীকরণের জন্য স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (কনস্যুলার) খ্যাভিয়ের মার্তি মার্তিকে অনুরোধ জানিয়েছেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ। 

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) মাদ্রিদে স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই অনুরোধ জানান বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত। 

শুধুমাত্র স্পেনের ক্ষেত্রে বর্তমানে বাংলাদেশি অভিবাসীদের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ ঢাকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গ্রহণের আবশ্যকতা রয়েছে। প্রবাসীদের জন্য প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত সময়সাপেক্ষ, দুরূহ এবং কষ্টসাধ্য। 

রাষ্ট্রদূত বলেন, 'ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রপ্তানি গন্তব্য স্পেন। এশিয়ার মধ্যে স্পেনের চতুর্থ বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার বাংলাদেশ। বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহ অন্যান্য সম্ভাবনাময় ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক ক্রমবর্ধমান। ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করা হলে দুই দেশের জনগণ, বিশেষত ব্যক্তিখাতের উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীগণ উপকৃত হবেন এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও সম্প্রসারিত হবে।'

বর্তমানে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জন্য স্পেনের ভিসা প্রাপ্তির প্রক্রিয়াকে অনেক জটিল উল্লেখ করে সারওয়ার মাহমুদ বলেন, 'স্পেনে বসবাসরত ৫০,০০০ এরও বেশি বাংলাদেশি, যা ইউরোপীয় ইউনিয়নের দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রবাসী কমিউনিটি। তারা দুই দেশের অর্থনীতিতেই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন। বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক ইস্যুকৃত ডিজিটালাইজড পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট স্পেন ছাড়া বিশ্বের সব দেশেই স্বীকৃত ও গ্রহণযোগ্য। বর্তমানে যেহেতু বাংলাদেশিদের সকল পাসপোর্টই মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট অথবা ই-পাসপোর্ট, সেহেতু স্পেনের কর্তৃপক্ষ যদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিবর্তে বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক ইস্যুকৃত ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক সত্যায়িত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদকে গ্রহণযোগ্য বিবেচনা করে, তাহলে তা প্রবাসীদের ভোগান্তি লাঘবে অনেক সহায়ক হবে।' 

এছাড়াও বাংলাদেশের যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইস্যুকৃত ও সত্যায়িত করা প্রবাসীদের বিবাহ সনদকে গ্রহণযোগ্য বিবেচনা করার জন্যও স্পেন সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত।

স্পেনের গালিসিয়া প্রদেশের কারাগারে আটক পাঁচ বাংলাদেশি নাগরিকের মুক্তির বিষয়টি তরান্বিত করার ক্ষেত্রে স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহায়তাও কামনা করেন রাষ্ট্রদূত।
 
বৈঠকের পর আলোচ্য সকল বিষয় নিয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান স্পেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনস্যুলার খ্যাভিয়ের মার্তি মার্তি।

ইত্তেফাক/এসএস