শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চুরির অপবাদে কৃষককে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২৩, ১৯:৪৬

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় চুরির অপবাদে সাইদুর রহমান সানা (৩৫) নামের এক কৃষককে ব্যক্তিকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। 

এদিকে, বেদম মারপিটের শিকার তালা উপজেলার রাঢ়ীপাড়া গ্রামের আজগর আলী সানার ছেলে সাইদুর রহমান সানা বর্তমানে তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চুরির অপবাদে কয়েকজন দুবৃর্ত্ত তার উপর বর্বরোচিত হামলা চালায় বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগী সাইদুর রহমান বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ঊর্ধ্বতন প্রশাসনের  হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আহত সাইদুর সানা হাসপাতালে ভর্তি। ছবি: ইত্তেফাক

তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাইদুর রহমান সানা বলেন, তিনি কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। একই গ্রামের রেজাউল ইসলাম ময়নার কাছে প্রায় ৫ হাজার টাকা পেতেন তিনি। উক্ত টাকা চেয়ে সে বিভিন্ন তালবাহানা করতো। বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর উক্ত টাকা চাইতে গেলে রেজাউল ইসলাম ময়না তার বাড়ির মোটর চুরি হওয়ার অপবাদ দেয়। একপর্যায়ে ময়নার নেতৃত্বে একই এলাকার সোবহান মোল্যা ও তার স্ত্রী, সাগর মোড়ল, হাশেম মোড়ল, একরামুল, জসিম, সজীবসহ কয়েকজন চুরির অপবাদ দিয়ে তাকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন চালায়। এ সময় সাইদুরের স্ত্রী লিলিমা খাতুন ও মা জাহানারা বেগম দুর্বৃত্তদের পা জড়িয়ে ধরলেও তারা নির্যাতন চালাতে থাকে। পরবর্তীতে পাটকেলঘাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। শুক্রবার সকালে পুলিশ সাইদুর রহমানকে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জিম্মায় দেয়। এ সময় পরিবারের লোকজন তাকে তালা হাসপাতালে ভর্তি করে। 

হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শ মোতাবেক দ্রুত তাকে সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করাতে হবে।
 
তালা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাজীব সরদার উক্ত রোগী ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ বিষয়ে রেজাউল ইসলাম ময়নার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

আহত সাইদুর সানা। ছবি: ইত্তেফাক

স্থানীয় ইউপি সদস্য মফিদুল ইসলাম বলেন, এলাকায় সাইদুর একজন ভালো ছেলে হিসেবে পরিচিত। সে চুরির মতো ঘটনায় জড়িত থাকতে পারে না।

পাটকেলঘাটা থানার এসআই আমির হোসেন জানান, সাইদুর রহমান সানাকে আহত অবস্থায় রাঢ়ীপাড়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়। তবে তার বিরুদ্ধে চুরির কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

ইত্তেফাক/পিও