বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বীর মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে হত্যা, সন্দেহভাজন যুবক গ্রেপ্তার  

আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫:৪২

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলীকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে পৌর শহরের স্টেডিয়াম এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তার আলমগীর হোসেন আব্দুল্লাহ (২৮) পাটগ্রাম পৌরসভার রসুলগঞ্জ গ্রামের নিউ পূর্বপাড়ার মৃত আব্দুল মতিন ছেলে।

পাটগ্রাম থানার ওসি ওমর ফারুক বলেন, গ্রেপ্তার আব্দুল্লাহ পলাতক আসামি নাহিদুজ্জামানের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তিনি ঘটনার দিন সারাদিন একসঙ্গে ছিল। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তাকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডের আবেদনসহ লালমনিরহাট আদালতে পাঠানো হয়েছে। মূল আসামিকে গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

অভিযুক্তের চাচা রোকনুজ্জামান বলেন, আব্দুল্লাহর বাবা ও মা নেই। সে আমার বুড়িমারী বাজারের দোকানে সারাদিন থাকে। রাত ৯টায় বাড়িতে আসে। রাতে খাওয়ার পর বন্ধু বান্ধবদের সঙ্গে ঘোরাঘুরি করে। বাসায় এসে শুয়ে পড়ে। শুক্রবার দোকান বন্ধ থাকে। ওতো এ রকম করতে পারে না। 

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে পাটগ্রাম পৌরসভা এলাকার রসুলগঞ্জ ৬ নাম্বর ওয়ার্ডের নিউ পূর্বপাড়ার নিজ বাসায় যাওয়ার সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলী দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে পাটগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে নিহত ওয়াজেদ আলীর ছেলে রিফাত হাসান বাদী হয়ে ফাতেমা প্রি-ক্যাডেট অ্যান্ড কিন্ডার গার্টেনের খণ্ডকালীন শিক্ষক নাহিদুজ্জামান প্রধান বাবুকে আসামি করে পাটগ্রাম থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এম ওয়াজেদ আলী পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক জেলা ডেপুটি কমান্ডার, পাটগ্রাম মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ (অবসরপ্রাপ্ত) ও ফাতেমা প্রি-ক্যাডেট অ্যান্ড কিন্ডারগার্টেনের পরিচালক।

ইত্তেফাক/আরএজে