বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শ্যালকের মারধরে দুলাভাইয়ের মৃত্যুর অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬:১০

খাগড়াছড়ির রামগড়ে শ্যালকের মারধরের দুলাভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি)  সকালে দুজনকে গ্রেপ্তার এবং লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি)  রাত পৌনে ১২টার দিকে রামগড় পৌরসভার ১ নম্বার ওয়ার্ডের শ্মশানটিলা এলাকায় এই হত্যার ঘটনা ঘটে।

নিহত দীপক ঘোষ মুন্না (৩৮) একই এলাকার রাখাল চন্দ্র ঘোষের ছেলে।  

গ্রেপ্তাররা হলেন- রামগড় পৌরসভার সুকেন্দ্রাইপাড়ার তপন ত্রিপুরার ছেলে নিহতের শ্যালক সাগর ত্রিপুরা (২৫) এবং বল্টুরামটিলা এলাকার সুমন নন্দির ছেলে ও সাগরের বন্ধু আকাশ নন্দি (২৪)।

নিহতের বাবা রাখাল চন্দ্র ঘোষ জানান, সোমবার রাত আনুমানিক পৌনে ১২টার দিকে রামগড় পৌরসভার শ্মাশানটিলা এলাকায় নিজের বাড়ির পাশে সাগর ত্রিপুরা ও তার বন্ধু আকাশ নন্দি, রুবেল, রিপ্রু চাই মারমা ও বাবুসহ বেশ কয়েকজন যুবক দীপকের  ওপর হামলা করে এলোপাথারী কিল ঘুষি ও লাথি মারে। একপর্যায়ে লোহার রড দিয়ে মুন্নার মাথার পেছনে আঘাত করলে দীপত মাটিতে লুটিয়ে পড়ে, পরে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। 

রামগড় পৌরসভার ১ নম্বার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল হক জানান, নিহত মুন্না ও তার ওপর হামলাকারি সকলেই মদ পান করে মাতাল অবস্থায় মারমারি করে। পরে স্বজনরা আহত মুন্নাকে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাজিম উদ্দিন বলেন, সকালে খবর পেয়ে থানার ওসিসহ তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করা হয়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক বিরোধের জেরে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে। তবে প্রকৃত কারণ উদঘাটন ও হত্যার সঙ্গে জড়িত বাকিদেরকে গ্রেপ্তারে পুলিশের তৎপরতা চলছে।

থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, নিহত মুন্নার শ্যালক সাগর ত্রিপুরাসহ পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত তিন জনকে আসামি করে নিহতের বাবা রাখাল চন্দ্র ঘোষ থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। 

ইত্তেফাক/আরএজে