শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মেসি ও পিএসজির স্মৃতি!

আপডেট : ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫:২২

মেলবোর্ন পার্কে চলছে লন টেনিসের বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। তবে টেনিসের সেই যুদ্ধের ময়দানে হাজির ফুটবল, মেসি এবং মেসির ক্লাব পিএসজির স্মৃতিও। টেনিস যুদ্ধের ময়দানে ফুটবল, মেসি ও পিএসজিকে টেনে নিয়ে গেছেন বেলারুশের টেনিস-কন্যা ভিক্টোরিয়া আজারেংকা। আসলে ‘কন্যা’ উপাধি অনেক আগেই পেছনে ফেলে তিনি এখন ‘মা’ উপাধির ধারক। ‘মা’ হওয়ার কারণেই টেনিসের ময়দানে ফুটবলকে টেনে নিয়ে যেতে হচ্ছে তাকে!

এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ৩৩ বছর বয়সি আজারেংকা নিজের প্রতিটি ম্যাচেই একটা অদ্ভুত দৃশ্য উপহার দিয়েছেন। প্রতি ম্যাচে তিনি কোর্টে হাজির হয়েছেন ফরাসি ক্লাব পিএসজির জার্সি পরে। ম্যাচ শুরুর আগে তা খুলে ফেললেও ম্যাচ শেষ হতেই আবার গায়ে চাপিয়েছেন পিএসজির জার্সি! আজারেংকার এই পিএসজির জার্সি প্রীতির কারণ দুটি—প্রথমত, তিনি পিএসজির সমর্থক। দ্বিতীয়ত, পিএসজিতে খেলেন মেসি, যার নামের সঙ্গে মিলিয়ে আজারেংকা নিজের ছেলের নাম রেখেছেন লিও। পুরো নাম লিও আজারেংকা।

ছেলে লিও আজারেংকার বয়স এখন সাত। মা আজারেংকার সঙ্গে ছেলে লিওও এখন অস্ট্রেলিয়ায়। প্রতিটি ম্যাচে মা-ছেলে পিএসজির জার্সি গায়ে চমক দেখিয়েছেন। মা আজারেংকা খেলার কারণে সাময়িক সময়ের জন্য তা খুললেও ছেলে লিও পিএসজির জার্সি পরেই গ্যালারি মাতিয়েছে। আজারেংকা বলেছেন, ২০১২ সালে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ডেভিড বেকহাম পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তিনি ফরাসি ক্লাবটির সমর্থক। মায়ের সুবাদে ছেলেও পিএসজিকে সমর্থন করে। এমনকি লিও বড় হয়ে একদিন পিএসজিতে খেলার স্বপ্নও এঁকে ফেলেছে! হ্যাঁ, মা টেনিস তারকা হলেও ছেলে বড় ফুটবলার হতে চায়। ফুটবলার হওয়ার মিশন শুরুও করে দিয়েছে সে। আজারেংকা নিজেই বলেছেন, ‘ও পিএসজির হয়ে খেলতে চায়। এটা ওর স্বপ্ন। আমি এখন ফুটবলারের মা হয়ে গেছি।’

ছেলেই প্রথম পিএসজির জার্সি পরা শুরু করে। পরে মা আজারেংকাও ছেলেকে অনুসরণ করে গায়ে চাপিয়েছেন মেসিদের ক্লাবের জার্সি। তবে পিএসজির জার্সি গায়ে মা-ছেলের মাঠে যাওয়ার এই দৃশ্য মেলবোর্ন পার্কে আর দেখা যাবে না। গতকাল মেয়েদের এককের সেমিফাইনালে যে হেরে গেছেন আজারেংকা।

 

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন