বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩, ১৬ চৈত্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মোহামেডান-কিংসের ম্যাচ শেষে হাতাহাতি

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯:৫৩

কুমিল্লায় প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে মোহামেডান-বসুন্ধরা কিংসের লড়াই উত্তাপ ছড়িয়েছিল। কিংস জিতবে সেটাই অনুমেয়। জিতেছেও ১-০ গোলে। কিন্তু এই জয় তুলে নিতে গিয়ে কিংসের খেলোয়াড়, কোচ কর্মকর্তার দম বেরিয়ে যাচ্ছিল।

খেলার শেষ বাঁশি বাজার আগমুহূর্তে একমাত্র গোলটি পেয়ে মোহামেডানকে হারিয়ে বেঁচে যায় বসুন্ধরা কিংস। ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার রবসনের কর্নারের বল আরেক ব্রাজিলিয়ান ডরিয়েলটনের মাথায় চুমু খেয়ে মোহামেডানের জালে জড়ায় ১-০। কিন্তু গোল নিয়ে আপত্তি মোহামেডানের। ঘিরে ধরেছিল রেফারি আলমগীর সরকারকে। মোহামেডানের দাবি, ফাউল হয়েছে। কিন্তু রেফারি সেটি মানেননি।

৯০ মিনিট শেষে যোগ হওয়া পাঁচ মিনিটের শেষ মিনিটে গোল হয়। দাবি ফাউল হয়েছিল, প্রতিবাদে মোহামেডানের ফুটবলাররা রেফারি আলমগীর সরকারকে ঘিরে ধরেন। মাঠে ঢুকে যায় উত্তেজিত দর্শকও। সেখানে ঘটে হাতাহাতির ঘটনা। ভিড়ের মধ্যখানে পড়ে যান রেফারি এবং সহকারী রেফারি। অনেকের দাবি, মোহামেডান সমর্থকরা রেফারিকে মেরেছে। রেফারিরা মাঠ থেকে বেরিয়ে যান। এর আগে রেফারি বসুন্ধরার জোবায়ের নিপুকে লালকার্ড দেখান। নিপু সহকারী রেফারির সঙ্গে মোহামেডানের বিষয়ে কথা বলেছিলেন। প্রতিবাদ করেছিলেন।

এদিকে এ জয়ে ৮ খেলায় ২৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস। ৭ খেলায় ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছুটছে আবাহনী। ১১ দলের লিগের লড়াইয়ে অষ্টম স্থানে থাকা মোহামেডানের পয়েন্ট ৭ খেলায় ৬। কুমিল্লার মাঠে এর আগের খেলায়, সাত দিন আগে আবাহনীর কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল মোহামেডান। সেবার দুই গোলই হজম করেছিল রক্ষণ দুর্বলতায়। গতকাল বসুন্ধরার মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে মোহামেডান রক্ষণ ধরে রাখল। আবাহনীর চেয়ে বসুন্ধরা কিংস অনেক বেশি শক্তিশালী। 

ইত্তেফাক/এসএস