বৃহস্পতিবার, ০৮ জুন ২০২৩, ২৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

৫২'র শহীদদের স্মরণে ২২ গজের তারকারা

আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২:০১

নিজের মুখের ভাষার জন্য যে প্রাণ দেওয়া যায়, ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি সেই উদাহরণ সৃষ্টি করেছিলো বাঙালি জাতি। রফিক-শফিকদের সেদিনের সেই আত্মত্যাগকে শ্রদ্ধা আর স্মরণ করে প্রতিবছর আজকের দিনটিতে বিশ্বজুড়েই পালিত হয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। 

আজকের দিনটিতে ১৯৫২'র সেসব ভাষা শহীদ আর নিজেদের মাতৃভাষাকে শ্রদ্ধা জানাতে নানা দেশজুড়ে চলছে নানা আয়োজন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। 

বাংলাদেশ ক্রিকেটের বড় বড় তারকারাও নিজেদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ১৯৫২'তে মাতৃভাষার জন্য নিজের বুকের রক্তে রাজপথ রঞ্জিত করা সেসব ভাষা শহীদদের প্রতি। 

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, 'যাদের ত্যাগে আজ আমরা বাংলায় কথা বলি, বাংলায় লিখি, বাংলায় গান গাই তাদের জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা।'

টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, 'মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা'

বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, 'যে মহান শহীদদের রক্তের বিনিময়ে আমরা এই বাংলাভাষা পেয়েছি, মাতৃভাষায় কথা বলতে পারছি, তাদের জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। শহীদ দিবস অমর হোক।'

সাবেক অধিনায়ক ও অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ লিখেছেন, 'যে ভাষার জন্য এত রক্তপাত, যে ভাষা আমাদের করেছে মহান, সেই ভাষা শহীদ দের কে কি ভুলতে পারি? ভাষা শহীদ ও ভাষা সৈনিকের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা।'

নিজের ফেসবুক পেজ থেকে সবাইকে মাতৃভাষা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবেক টাইগার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি নিজের ফেসবুক পেজে লিখেছেন, 'বাংলা আমার তৃষ্ণার জল, তৃপ্ত শেষ চুমুক, আমি একবার দেখি, বার বার দেখি, দেখি বাংলার মুখ... সকল ভাষা শহিদ ও ভাষা সৈনিকদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই।'

টাইগার পেসার তাসকিন আহমেদ লিখেছেন, 'আমার দুঃখিনী বাংলায় শত রক্তের ছাপ। একুশ আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব। ২১শে ফেব্রুয়ারী কোনো সংখ্যা নয়, একুশ, সকল বাঙালির হৃদয়ে গাঁথা। এই মহান দিবসে শ্রদ্ধায় অবনত হই ভাষা শহীদদের প্রতি যারা আমাদের পরিচয় অক্ষত রেখে গিয়েছে।'

ইত্তেফাক/এসএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন