বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

জার্মানিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ৪ বছরে তিনগুণ বেড়েছে

আপডেট : ১৪ মার্চ ২০২৩, ১১:১১

জার্মানিতে সংবাদ মাধ্যম বা সাংবাদিকদের ওপর হামলা চার বছরে তিনগুণ বেড়ে ২০২২ সালে ইতিহাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাম দল। সংসদে সারা দেশে সংবাদ মাধ্যমের ওপর হামলার সার্বিক চিত্র সম্পর্কে জানতে চেয়েছিল লেফ্ট পার্টি। 

সেই দাবি পূরণ করতে গিয়েই একটি প্রতিবেদন পেশ করে ফেডারেল ক্রাইম পুলিশ (বিকেএ)। প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০২২ সালে জার্মানিতে সাংবাদিকদের ওপর মোট ৩২০টি হামলা হয়েছে। জার্মানিতে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রথম প্রকাশ করা হয় ২০১৬ সালে। 

জার্মানিতে সংবাদ মাধ্যম বা সাংবাদিকদের ওপর হামলা চার বছরে তিনগুণ বেড়ে ২০২২ সালে ইতিহাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে।

তখন থেকে ২০২১ পর্যন্ত আরো কোনো বছর সংবাদকর্মীদের ওপর এত হামলা হয়নি। ডি ভেল্ট পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩২০টি হামলার মধ্যে এক পঞ্চমাংশই হয়েছে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ঘোষণা করা স্বাস্থ্যবিধি প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত বিভিন্ন বিক্ষোভ সমাবেশে। 

মোট হামলার মধ্যে ৪৬টি ছিল সহিংস, ৪১টি শুধু হুমকিতেই সীমাবদ্ধ ছিল, ৩১টিতে সম্পত্তি বিনষ্ট হয় আর ২৭টিতে সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়া হয়। বিকেএ এর প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে ডি ভেল্ট আরো জানায়, জার্মানির রাজ্যগুলোর মধ্যে ২০২২ সালে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি ৬৯টি 'অপরাধ' হয়েছে স্যাক্সনিতে, পরের স্থানগুলোতে রয়েছে যথাক্রমে বার্লিন (৬৬), বাভারিয়া (৪০) এবং নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া (২০)।

৩২০টি হামলার মধ্যে এক পঞ্চমাংশই হয়েছে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ঘোষণা করা স্বাস্থ্যবিধি প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত বিভিন্ন বিক্ষোভ সমাবেশে। 

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, আগের চার বছরের তুলনায় জার্মানিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ২০২২ সালে তিনগুণেরও বেশি বেড়েছে। ২০১৮ সালে সারা দেশে হামলা হয়েছিল মোট ৯৮টি, ২০২২ সালে তা বেড়ে হয়েছে ৩২০! বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে লেফ্ট পার্টি। 

দলের মিডিয়া পলিসি বিষয়ক মুখপাত্র পেত্রা জিটে বলেছেন, 'নথিবদ্ধ হওয়া হিসেব অনুযায়ী জার্মানিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ২০২২ সালে নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে, যা খুবই দুঃখজনক।' সাংবাদিকদের ওপর হামলা বন্ধ করতে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারকে যৌথভাবে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

ইত্তেফাক/ডিএস