রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় সাংবাদিকদের পেটাল পুলিশ

আপডেট : ১৫ মার্চ ২০২৩, ১৫:৩৪

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিকদের মারধর করেছে পুলিশ। সংবাদ সংগ্রহে যাওয়া সাংবাদিকসহ আইনজীবীদেরও রাইফেল ও লাঠি দিয়ে এবং মাটিতে ফেলে বুট দিয়ে পুলিশ পিটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের মারতে মারতে ভোটকেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১৫ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় অন্তত ১০ জন সাংবাদকর্মী আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে এটিএন নিউজের সাংবাদিক জাবেদ আক্তারের অবস্থা গুরুতর। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অন্যান্যরা হলেন, প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ ফটো সাংবাদিক শুভ্র কান্তি দাস, জাগো নিউজের জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ফজলুল হক, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের জান্নাতুল ফেরদৌস, আজকের পত্রিকার নূর মোহাম্মদ, মানবজমিনের আব্দুল্লাহ আল মারুফ, বৈশাখী টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন ইব্রাহিম হোসেন, এটিএন বাংলার ক্যামেরাপার্সন হুমায়ুন কবির।

সাংবাদিকেরা জানান, সংবাদ সংগ্রহের জন্য সুপ্রিম কোর্ট বার অডিটোরিয়ামের ভেতর ভোটকেন্দ্রে গেলে পুলিশ অতর্কিতভাবে হামলা করে। বুট দিয়ে লাথি মেরে, লাঠিপেটা, কিলঘুষি মেরে, ফ্লোরে ফেলে নির্দয়ভাবে পিটিয়ে সাংবাদিকদের বের করে দেওয়া হয়।

আহত সাংবাদিক জাবেদ আক্তার বলেন, সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পরও পুলিশ আমাকে পায়ের নিচে ফেলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও নির্যাতন করেছে।

সাংবাদিক ফজলুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, পুলিশ আমাকে ঘিরে ধরে পিটিয়েছে। এতে আমার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত লেগেছে। পুলিশ বিভিন্ন সাংবাদিকদের মুঠোফোন ও ক্যামেরা কেড়ে নেন।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে পাঁচ শতাধিক (৩১ প্লাটুন) পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

এদিকে, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নতুন নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠনের দাবিতে ভোটকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত অডিটোরিয়ামে বিক্ষোভ করছেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। বিক্ষোভে তারা বলছেন, আগে নির্বাচন কমিশন চাই, তারপর নির্বাচন হবে।

ইত্তেফাক/এসকে