সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফিলিস্তিন নিয়ে সম্পর্কে টানাপোড়েন

‘ইসরাইলের অস্ত্র কিনবে না আরব আমিরাত’

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২৩, ০১:১৮

গত দেড় মাসে ফিলিস্তিনে ধারাবাহিক সামরিক অভিযান ও পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপন নিয়ে ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সম্পর্কের দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে। এরই জেরে ইসরাইলের কাছ থেকে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার সিদ্ধান্ত বাতিল করছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ইসরাইলি সংবাদমাধ্যম চ্যানেল-১২-র এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে চ্যানেল ১২-র প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ইসরাইল সরকারের কর্মকাণ্ড আমিরাতকে ক্ষুব্ধ করেছে। বিশেষ করে, ইসরাইলের জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী ইতামার বেন গাভির নির্দেশে আল-আকসা মসজিদে হামলা, ফিলিস্তিনের হুওয়ারা শহরের বাসিন্দাদের ওপর ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের হামলা, গ্রামটিকে নিশ্চিহ্ন করে দিতে ইসরাইলি অর্থমন্ত্রী বেজালেল স্মোতরিচের আহ্বানে ক্ষুব্ধ হয়েছে আমিরাত। জানা যায়, সম্প্রতি আমিরাতে সফর স্থগিত করেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। এরপরই ইসরাইলি প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কেনার সিদ্ধান্ত বাতিলের কথা জানায় সংযুক্ত আরব আমিরাত। যদিও দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমিরাতের এ সিদ্ধান্তের বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছে। একে ভিত্তিহীন উল্লেখ করে জেরুজালেমের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে গঠনমূলক কূটনৈতিক সম্পর্ক অব্যাহত রয়েছে।

আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ বলেছেন, ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু তার সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম না হওয়া পর্যন্ত আমরা একসঙ্গে কাজ করব না। তবে দুই দেশের মধ্যে গোয়েন্দা ও নিরাপত্তা সহযোগিতা এখনো অব্যাহত রয়েছে। এদিকে, নেতানিয়াহুর আমিরাত সফরের পরিবর্তী তারিখ এখনো প্রকাশ করা হয়নি। এরই মধ্যে চলতি সপ্তাহেই ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব।

ইত্তেফাক/ইআ