বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নদী দখল করে রাস্তা নির্মাণ, ১০ লাখ টাকা জরিমানা

আপডেট : ২০ মার্চ ২০২৩, ২১:১৪

বগুড়ার সদর উপজেলার নওদাপাড়া এলাকায় করতোয়া নদীতে মাটি ভরাট করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগে ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘ (টিএমএসএস) নামে এক এনজিওকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার (২০ মার্চ) ২টার দিকে টিএমএসএসকে এ জরিমানা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফিরোজা পারভীনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নওদাপাড়া এলাকায় টিএমএসএসের ইকোপার্কের ভেতরে করতোয়া নদীর প্রবাহ বন্ধ ও বাধাগ্রস্ত করে ভরাট করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পায় প্রশাসন। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত শনিবার টিএমএসএসের ইকোপার্কে সরেজমিনে পরিদর্শনে যান ইউএনও ফিরোজা পারভীন। এ সময় সেখানকার শ্রমিকরা ইউএনওকে জানান, তারা টিএমএসএসের হয়ে নদী ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ করছেন। ইউএনও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে চাইলে টিএমএসের নির্বাহী পরিচালক হোসনে আরা বেগম সেখানে উপস্থিত হয়ে ভরাট করা জায়গা টিএমএসএসের নিজস্ব সম্পত্তি বলে দাবি করেন। 

পরে সিদ্ধান্ত হয় জায়গা পরিমাপ করে সীমানা চূড়ান্ত চিহ্নিত না হওয়া পর্যন্ত ভরাট কাজ বন্ধ থাকবে এবং প্রমাণিত হলে আইন অনুযায়ী যে দণ্ড দেওয়া হবে। এরপর সোমবার বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড, ভূমি অফিস এবং টিএমএসএসের সার্ভেয়াররা একসঙ্গে করতোয়া নদীর সীমানা চিহ্নিত করেন।

ইউএনও ফিরোজা পারভীন বলেন, কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিলেও অমান্য করে তা চলমান রাখে টিএমএসএস। নদীর প্রবাহকে বাধাগ্রস্ত করে সংস্থাটি রাস্তা নির্মাণ করেছে। নদী ভরাট করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগের সত্যতাও মিলেছে। তাই পরিবেশ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী টিএমএসএসকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে সংস্থাটির সহকারী পরিচালক নজিবর রহমানকে ৩ মাস কারাভোগ করতে হবে।

ইত্তেফাক/এবি/পিও