বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

টরন্টোতে শেষ হলো বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল

আপডেট : ২২ মে ২০২৩, ১৫:৪৩

কানাডার টরন্টোতে শনিবার (২০ মে) অনুষ্ঠিত হলো বাংলাদেশি কমিউনিটির সবথেকে বড় অনুষ্ঠান বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল। উপচে পড়া দর্শক-শ্রোতাদের প্রাণবন্ত হয়ে উঠে এই আনন্দঘন উৎসব।

স্থানীয় উদীচী, বাচনিক ছাড়াও উৎসবে যোগ দেন বাংলাদেশ থেকে সঙ্গীত শিল্পী রুমানা মোর্শেদ কনক চাপা, অভিনেতা ও উপস্থাপক মীর সাব্বির, অভিনেতা মাজনুন মিজান এবং আরফান আহমেদ।

তিন অভিনেতা মঞ্চ মাতিয়ে তোলেন আঞ্চলিক ভাষায়। আঞ্চলিক ভাষায় কথোপকথনের মাধ্যমে দর্শকদের হাততালি কুড়ান। পরে বাঁশি বাজিয়ে দর্শকদের মন কেড়ে নেন মীর সাব্বির।

মীর সাব্বির ইত্তেফাককে বলেন, কানাডায় আমার প্রথম আসা। তবে মনেই হচ্ছে না, এটা প্রথম এসেছি। এতো স্বজন, এতো আপ্যায়ন মনে হচ্ছে শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে এসেছি। আমি প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতি চর্চার দেখে আমি মুগ্ধ। অনেক গুণীজন এখন কানাডায়। যেনো বাংলাদেশ ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। আমার প্রাণ যেমন পূর্ণতা পেলো।

অভিনেতা মিজান বলেন, কানাডা আসলেই সুন্দর একটা দেশ। বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালে না এলে তা বুঝতে পারতাম না। এখানে বাংলাদেশি অভিবাসীরা সব দিক দিয়েই চমৎকার। বিশেষ করে তাদের রেমিটেন্সে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ।

সদ্য সমাপ্ত ষষ্ঠ বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল সম্পর্কে শিল্পী কনক চাঁপা জানান, সত্যিই আমার সারা জীবনের শ্রেষ্ঠতম মঞ্চের একটি ছিল এবারের মঞ্চ। আসার আগে থেকেই শুনছিলাম একাধিকবার যে টরোন্টো আমার জন্য অপেক্ষা করছে। অথচ এর আগে আরো পাঁচবার এখানে এসেছি, একটা মঞ্চেরও ভালো স্মৃতি নেই বললেই চলে। আমি একটু উৎকণ্ঠিতও ছিলাম। কিন্তু মঞ্চে গিয়ে আমি অভিভূত! পিন পতন নীরবতা এবং মুগ্ধ মুখগুলো দেখে গায়ে কাঁটা দিচ্ছিল।

ইত্তেফাক/এএইচপি