বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মেনস হকি জুনিয়র এশিয়া কাপ-২০২৩

স্বাগতিকদের হারানোর পর আজ কঠিন প্রতিপক্ষের সামনে বাংলাদেশ

আপডেট : ২৫ মে ২০২৩, ১০:৫৩

মেনস হকি জুনিয়র এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে গত মঙ্গলবার (২৩ মে) স্বাগতিক ওমানকে ২-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে করেছে লাল-সবুজরা। টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ আজ মুখোমুখি হবে মালেয়শিয়ার। বাংলাদেশ সময় আজ বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় ওমানের সালালাহ স্পোর্টস কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি।

এদিকে দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালেয়শিয়া স্বাগতিক ওমানের তুলনায় বেশি শক্তিশালী দল। মালেয়শিয়া নিজেদের প্রথম ম্যাচে উজবেকিস্তানকে ৮-১ গোলে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনা করেছে। এছাড়া বাংলাদেশের সঙ্গে খুব বেশি একটা খেলা হয়নি তাদের। আর যা হয়েছে তাতেও লাল-সবুজদের কোনো সুখের স্মৃতি নেই। বাংলাদেশ সবশেষ যেবার মালেয়শিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল সেবার এক কথায় পাত্তাই পায়নি তাদের সামনে। ২০১৫ সালে অনূর্ধ্ব-২১ দল নিয়ে হওয়া ঐ প্রতিযোগিতায় ৮-০ গোলে লাল-সবুজদের হারিয়েছিল তারা। তবে সময় বদলেছে বাংলাদেশও হকিতে নিজেদের উন্নত করে তুলছে। তাই বলা যায়, বাংলাদেশ সামনে আজ সুযোগ রয়েছে জয় তুলে নিয়ে আগের সেই হারের জবাব দেওয়ার।

এর আগে গত মঙ্গলবার আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক ওমানের বিপক্ষে তাসিন আলী ও জাহিদ হোসেনের করা গোলে জয় পায় বাংলাদেশ। খেলার ২২ মিনিটে অসাধারণ এক ফিল্ড গোলে দলকে শুরুর লিড এনে দেন তাসিন। মিনিট দুয়েক পর আবারও গোলের আনন্দ বাংলাদেশের। ফিল্ড গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জাহিদ। আর তাতেই ২-০ গোলে জয় পায় লাল-সবুজরা। এছাড়া চার মাস আগে এই দলটির কাছেই এএইচএফ কাপ হকির ফাইনাল ম্যাচ জিতেছিল বাংলাদেশ।

প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়ার পর বাংলাদেশ দলের টিম লিডার মাহাবুবুল এহছান রানা বলেন, ‘জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করতে পেরে আমরা খুশি। স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে জেতা সব সময়ই কঠিন। ওমান সব সময়ই শক্ত প্রতিপক্ষ। তাদের বিরুদ্ধে আমাদের ছেলেরা ভালো খেলে রেজাল্ট বের করে এনেছে।’ 

তিনি আরো বলেন, ম্যাচের শুরুতে গুছিয়ে উঠতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছিল। সময় যত গড়িয়েছে ততই আমরা নির্ভুল ম্যাচ খেলেছি। কোচের পরিকল্পনা বলব না যে শতভাগ বাস্তবায়ন করেছে ছেলেরা; তবে এই ম্যাচে অনেকটা পেরেছে। সামনে আশাকরি দল আরো নিজেদের গুছিয়ে নেবে। আমাদের গোলরক্ষক নয়ন আজ দারুণ খেলেছে। তাসিন, জাহিদ, রকিরাও ভালো খেলেছে।’

ইত্তেফাক/এসএস