শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানি, বিচারের দাবিতে থানা ঘেরাও

আপডেট : ০৪ জুন ২০২৩, ২০:৩৮

শরীয়তপুর জেলার জাজিরার একটি বিদ্যালয়ের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে রোববার (৪ জুন) বিক্ষোভ মিছিল ও পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা ঘেরাও করেছে। 

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান শিক্ষার্থীদের এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। পরে ওসির বিচারের আশ্বাসের বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা থানা চত্বর থেকে চলে যায়।

অভিযুক্ত ঐ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী মো. মাসুদুর রহমান নাওডোবা হাজী জৈনুদ্দিন মাদবর কান্দি গ্রামের মৃত নুরুল মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার পশ্চিম নাওডোবার মাধ্যমিক বিদ্যালয় আমজাদিয়া একাডেমিতে এক ছাত্রীকে সকাল সাড়ে আটটার দিকে বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী তার অফিস কক্ষে ডেকে নেন। এরপর তিনি ওই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করেন। তখন অন্য শিক্ষার্থীদের চেষ্টায় ওই ছাত্রী রক্ষা পায়। পরের দিন ওই ছাত্রী প্রধান শিক্ষকের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি অফিস সহকারীকে এক মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করেছে। ঘটনাটি তদন্ত করার জন্য ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগের বিষয় মৌখিকভাবে জেনেছেন। শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে থানা চত্বরে এসেছিল। তাদের লিখিত অভিযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। অফিস সহকারী ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা থানা চত্বর থেকে চলে যায়।

ঘটনার বিষয়ে দশম ও নবম শ্রেণির দুই শিক্ষার্থী বলেন, অফিস সহকারীকে বিদ্যালয় থেকে স্থায়ী বরখাস্ত না করা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

বিদ্যালয়টি প্রধান শিক্ষক বলেন, এক শিক্ষার্থী আমাদের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে  শ্লীলতাহানির লিখিত অভিযোগ করেছে। অভিযোগের বিষয়ে ছয় সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অফিস সহকারীকে এক মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে।

ইত্তেফাক/পিও