বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীর ব্যানার ছিঁড়ে ফেলায় অস্ত্র নিয়ে মহড়া

আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ২০:২২

কুমিল্লার বরুড়ায় অস্ত্র নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই কর্মীর ভিডিও ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। পুলিশ অস্ত্রধারীদের আটক ও অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান শুরু করেছে।

শনিবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অস্ত্রধারীদের কেউ আটক হয়নি। 

অস্ত্র হাতে ভাইরাল হওয়া ওই দুই যুবকের নাম রিয়াজ ও ফরহাদ। তারা উপজেলার খোশবাস উত্তর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী রিয়াজ ও ফরহাদ হাতে অস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মহসিন ও তার ভাই ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক কবির হোসেনসহ অন্যরা তাদেরকে নিবৃত্ত করার চেষ্টা করছেন।

জানা গেছে, উপজেলার খোশবাস উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের মধ্যে একাধিক গ্রুপের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গত ১২ আগস্ট স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে খোশবাস এলাকায় একটি ব্যানার লাগানো হয়। ওই ব্যানারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির পাশে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী রিয়াজ হোসেন ও ফরহাদ হোসেনের ছবি দেওয়া হলে একটি পক্ষ ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে।

ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা বলেন, ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় মাঠে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এতে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী ফরহাদ ও রিয়াজ অপর পক্ষ খোরশেদ আলম খোকার লোকজনের মধ্যে হাতাহাতি এবং পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় ওই এলাকার জনসাধারণের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

অস্ত্রধারী দুই যুবকের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

খোরশেদ আলম খোকা বলেন, যাদের হাতে অস্ত্র দেখা গেছে, তারা আমাদের অনুসারী নয়, দলের কোনো পদে আছে তাও জানি না। তাই শোক দিবসের ব্যানারে তাদের ছবি দেখে আমাদের অনুসারীরা ক্ষুব্ধ হয়। তাই ব্যানারটি ছিঁড়ে ফেলায় এমন ঘটনা ঘটেছে।

খোশবাস উত্তর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মহসিন বলেন, অস্ত্র প্রদর্শন করা দুই জন দলের ওয়ার্ড কমিটির কোনো পদে আছে না কিনা তা আমার জানা নেই। তবে তারা আগে ছাত্রলীগ করলেও বর্তমানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী এটা বলতে পারি। একটি তুচ্ছ ঘটনায় প্রকাশ্যে এভাবে অস্ত্র প্রদর্শনের বিষয়ে দল ও প্রশাসন ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি উঠেছে।

বরুড়া থানার ওসি ফিরোজ হোসেন বলেন, অবৈধভাবে অস্ত্র প্রদর্শনের ঘটনাটি দেরিতে হলেও আমাদের নজরে এসেছে। অস্ত্রধারীদের শনাক্ত করা হয়েছে। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারসহ তাদেরকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/এবি