রোববার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

গর্ভবতী স্ত্রীর চিকিৎসার খরচ মেটাতে স্বামী করেন ডাকাতি

সিংগাইরে ডাকাতির রহস্য উন্মোচন

আপডেট : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৩:২০

গর্ভবতী স্ত্রীর চিকিৎসার খরচ মেটাতে ডাকাতির পথ বেছে নিয়েছিলেন স্বামী। ডাকাতির অভিযোগে সিংগাইর থানায় দায়ের হওয়া মামলার রহস্য উন্মোচন করেছে মানিকগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিকেশন (পিবিআই)। পিবিআইর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম কে এইচ জাহাঙ্গীর হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, দেড় বছর আগে গর্ভবতী স্ত্রীর চিকিৎসার খরচ মেটানোর জন্যই জাহিদ মোল্যা নামে এক জন ডাকাতি করেছিলেন। তাকে সিংগাইর থানা সদরের একটি ভাড়া বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত  জাহিদ মোল্লা ফরিদপুরের নগরকান্দা থানার মশাইজান গ্রামের আফতাব মোল্লার ছেলে। ২০২২ সালের ৬ মার্চ রাতে ১০ জনের এক দল ডাকাত উপজেলার জামশা চাকুলিয়া গ্রামে আরিফ মোল্যার বাড়িতে ডাকাতি করে সোনার অলংকার ও দুইটি মোবাইল ফোনসেট নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গৃহকর্তা আরিফ মোল্যা থানায় মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশের তদন্তে এ মামলার রহস্য উদঘাটিত না হওয়ায় পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে চলতি বছর মার্চে পিবিআই মানিকগঞ্জকে এ মামলার দায়িত্ব দেওয়া হয়। পিবিআইর এসআই হিরন চন্দ্র মজুমদার মামলাটি তদন্ত শেষে ডাকাতির মূল পরিকল্পনাকারী জাহিদকে গ্রেফতার করেন।

জাহিদের তথ্যমতে ফরিদপুর কোতোয়ালি বিলমাবুদপুরে নিজ বাড়ি থেকে বাবু কবিরাজ নামে আরেক ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন, স্ত্রীর সন্তান প্রসবের সময় ঘনিয়ে আসছিল। সংসার চালাতে আগে থেকেই হিমশিম খাচ্ছিলেন জাহিদ। এসব খরচের ব্যয়ভার বহন করার জন্যই ডাকাতির পথ বেছে নেন বলে জাহিদ স্বীকার করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম কে এইচ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আসামিদের সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ১৬৪ ধারায় আদালতে তারা তাদের দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন।

ইত্তেফাক/এমএএম