শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফিলিস্তিনি শিশুর জায়গায় আমার শিশুও হতে পারত: ফুটবলার বিশ্বনাথ

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২৩, ১০:১৯

বসুন্ধরা কিংসের অনুশীলন শেষ করে বিশ্রামে ছিলেন ফুটবলার বিশ্বনাথ ঘোষ। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে পারায় মন ভালো লাগছে। তবে হাতে মোবাইল ফোন নিয়ে দেখতে পান ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলের হামলায় শিশু হত্যা। এসব ছবি দেখলে এবং নিউজ পড়লে আনন্দে থাকা বিশ্বনাথের মনটা ভার হয়ে যায়।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অস্ট্রেলিয়া, লেবানন এবং ফিলিস্তিনের বিপক্ষে খেলা আছে বাংলাদেশের। সেই ফিলিস্তিনের হাসপাতালে বোম মারছে ইসরাইল। নারী-শিশু সবই নির্বাচারে হত্যার শিকার হচ্ছে। রক্তাক্ত শিশু পড়ে আছে, রক্তাক্ত শিশু বাঁচার জন্য কান্না করছে। শিশুর পরিবারের সবাই মারা গেছেন। এসব শিশুকে দেখবে কে। এসব ছবি বিশ্বনাথের মনটা কাঁদাচ্ছে।

গত মঙ্গলবার ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইয়ের রাউন্ড-১-এর খেলায় ২-১ গোলে মালদ্বীপকে হারিয়ে আরেক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচের পর বিশ্বনাথ ফিলিস্তিন পতাকা নিয়ে মাঠ প্রদক্ষিণ করেন। যুদ্ধ বন্ধের নীরব আহ্বান জানান বিশ্বনাথ। কিন্তু সেই খেলার ভারতীয় ম্যাচ কমিশনার শুভরাত আপত্তি করলে বিশ্বনাথের কাছ থেকে ফিলিস্তিন পতাকা নিয়ে নেওয়া হয়। বাফুফের মিডিয়া ডিপার্টমেন্ট থেকে বলা হয়েছিল, 'মালদ্বীপের মাঠে যখন মালদ্বীপের বিপক্ষে বাংলাদেশ ম্যাচ হয়েছিল, তখন সেখানেও গ্যালারিতে ফিলিস্তিন পতাকা নিয়ে এসেছিলেন অনেকেই। সেগুলো নেওয়া হয়নি। এখানে কেন খেলা হয়েছে, তা বলতে পরছি না।'

ঢাকায় বাংলাদেশ-মালদ্বীপ ফিরিতি ম্যাচে বসুন্ধরা কিংসের গ্যালারিতেও ফিলিস্তিন পতাকা নিয়ে যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানানো হয়। খেলা শেষে বিশ্বনাথও সেটা করেছিলেন। মানবিকতার কারণেই তিনি ফিলিস্তিনি পতাকা হাতে নিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন বিশ্বনাথ।

বিশ্বনাথ বলেন, ‘এটা কোনো পরিকল্পনা করে করা হয়নি। খেলার পর গ্যালারি থেকে পতাকা নিয়ে আমরা নীরব থাকি। যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাই।’

‘এখানে ধর্ম কোনো বিষয় না। আমরা মানুষ, রক্তেগড়া মানুষ। এখানে মানবতা বড় কথা। মানবিক কারণে আমরা পতাকা নিয়েছিলাম। পৃথিবীর কে চায় যুদ্ধ হোক, মারামারি হোক? সাবাই চায় এটা বন্ধ হোক। আমিও চাই বন্ধ হোক।’

বিশ্বনাথ আরও বলেন, ‘খবরে দেখি শিশুরা রক্তমাখা অবস্থায়। আমার ঘরেই দুজন শিশু আছে। ওদরে যদি এমন অবস্থা হতো। আপনার শিশুও যদি এমন পরিস্থিতির মধ্যে পড়ত, কেমন লাগত? আমার খারাপ লেগেছে তাই মানবিকতা বোধ থেকে আমি মনে করি যুদ্ধ বন্ধ হোক। পুতুলের জন্য কাঁদছে না। রক্তাক্ত শিশুর এমন কান্না পৃথিবীর যে কারো হৃদয় কাঁপিয়ে দেবে।’

ইত্তেফাক/এসকে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন