সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

ইরাকে মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলা 

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২৩, ১৩:৫৩

মার্কিন সেনাবাহিনীর অবস্থান আছে এমন ইরাকি সামরিক ঘাঁটিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ড্রোন ও রকেট হামলার ঘটনা ঘটেছে। অজ্ঞাত নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। আজ শুক্রবার (২০ অক্টোবর) বিবিসির লাইভ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

রয়টার্স বলছে, আইন আল-আসাদ বিমান ঘাঁটিতে একাধিক বিস্ফোরণ হয়েছে। ইরাকি সামরিক বাহিনী ওই অঞ্চল বন্ধ করে দিয়েছে এবং অভিযান শুরু করেছে। তবে এ হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেছে কি না- তা নিয়ে এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। 

ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইসরায়েলকে সহায়তা করার জন্য ইরান সমর্থিত ইরাকি গোষ্ঠী যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দেয়। এরপরেই ইরাকে মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলা হলো। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার শুরুর দিকে পেন্টাগনের পক্ষ থেকে বলা হয়, গত মঙ্গলবার থেকে ইরাক এবং সিরিয়া মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলা চালান হচ্ছে। 

পেন্টাগনের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল প্যাট রাইডার জানান, আমরা দেখেছি ইরান সমর্থিত জঙ্গি গোষ্ঠী এ ধরনের হামলা চালায়। তবে এসব হামলা নিয়ে এখনো পর্যবেক্ষণ চলছে বলে জানান তিনি। পেন্টাগনের পক্ষ থেকে বলা হয়, ইয়েমেনে হুথিদের ছোড়া ড্রোন ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত করেছে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ। 

গত ৭ অক্টোবর গাজা থেকে ইসরায়েল অভিমুখে হাজার হাজার রকেট ছুড়ে হামাস। হামাসের দাবি, তারা ২০ মিনিটের মধ্যে ইসরায়েলে পাঁচ হাজার রকেট ছুড়েছে। সেইসঙ্গে ইসরায়েল সীমান্ত অতিক্রম করে দেশটিতে হামলা চালিয়েছে হামাসের যোদ্ধা। এতে ইসরায়েলে এক হাজার ৪০০ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কয়েক হাজার। এরপরেই গাজায় পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েল বাহিনী। ইসরায়েলকে সহায়তায় ইতিমধ্যে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে দুইটি রণতরী পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সেইসঙ্গে স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত বুধবার ইসরায়েল সফরে যান।

ইত্তেফাক/কেকে