রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

সিরিয়ায় ইরানি ঘাঁটিতে আবারো যুক্তরাষ্ট্রের হামলা

আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০২৩, ১৪:৩৪

সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় একটি শহরে অবস্থিত একটি ইরানি ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই ঘাঁটি থেকে সিরিয়া ও ইরাকে সন্ত্রাসীদের অস্ত্র-গোলাবারুদ সরবরাহ করা হতো বলেও অভিযোগ করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দপ্তর পেন্টাগন।

পেন্টাগনের দাবি, গত কয়েকদিন ধরে ইরাকে ঘাঁটি করে থাকা মার্কিন সেনার ওপর একের পর এক হামলার ঘটনা ঘটেছে। ইরানের প্ররোচনায় বেড়ে ওঠা জঙ্গিগোষ্ঠী কিছুদিন ধরেই এসব হামলা করছে। এরই জবাব হিসেবে বুধবার (৮ নভেম্বর) পাল্টা হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন এক বিবৃতি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক, সেনা ও দেশটির জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করা প্রেসিডেন্টের (জো বাইডেন) দায়িত্ব। সেই কর্তব্যবোধ থেকেই সিরিয়ায় এ হামলার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।’

অস্টিন আরও বলেন, ‘তাদের দুইটি এফ-১৫ যুদ্ধবিমান সিরিয়ায় একটি অস্ত্রের গুদামে আক্রমণ চালায় যা ইরানের রেভেলিউশনারি গার্ডের সঙ্গে জড়িত। পেন্টাগনের ভাষ্য, ‘গুদামটি রেভেল্যুশনারি গার্ডের সদস্যরাই পরিচালনা করেন।’

অন্যদিকে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, অক্টোবর জুড়ে সিরিয়ায় অন্তত ৪০ বার আক্রমণ করে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু সব হামলাই ইরানের মদদপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনের ঘাঁটি লক্ষ্য করে সংঘটিত হয়েছে বলে দাবি করছে যুক্তরাষ্ট্র।

সেই সঙ্গে সিরিয়ায় ৯০০ ও ইরাকে আড়াই হাজার সেনা আছে যুক্তরাষ্ট্রের। আইএসের সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য এই দুই অঞ্চলে ওই সেনাবাহিনীকে রাখা হয়েছে। পেন্টাগন জানায়, গত কয়েক দিনে এই দুই মার্কিন ঘাঁটিতেই একাধিকবার হামলা চালিয়েছে ইরানি সন্ত্রাসীরা।

বস্তুত, ইসরায়েল-হামাস সংঘাত শুরু হওয়ার পরে এই দুই অঞ্চলেও উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইত্তেফাক/এমটি/এইচএ