শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

কবরে ৭ দিন কাটালেন ‘মিস্টার বিস্ট’! 

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২৩, ১৪:১৫

জনপ্রিয় ইউটিউবার জিমি ডোনাল্ডসন ওরফে ‘মিস্টার বিস্ট’ এর নাম শুনেছেন অনেকেই। তিনি দর্শকদের আকর্ষণ বাড়াতে কোটি টাকার পুরষ্কার আর বিভিন্ন রকমের চমকপ্রদ ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করেন। এবার সবাইকে চমকে দিতে কফিনবন্দী হয়ে মাটির নিচে ৭ দিন কাটিয়েছেন এ মার্কিন ইউটিউবার। প্রশ্ন উঠেছে, তার পরেও তিনি জীবিত থাকলেন কীভাবে?  

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে বলা হয়েছে, জিমির (২৫) কফিনের ঢাকনা ছিল স্বচ্ছ। ভেতরে ছিল পানি ও হিমায়িত শুকনা খাবার। তার নিরাপত্তা নিশ্চিতে ও প্রতিক্রিয়া রেকর্ড করার জন্য সেখানে ছিল ক্যামেরা। কফিনে বাতাস চলাচলের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছিল। সেখান থেকে জিমি তার বন্ধুদের সঙ্গে এবং মাটির ওপরে থাকা তার সহযোগীদের সঙ্গে কথাও বলতে পারতেন। এমনকি সেখানে তার নড়াচড়ার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা রাখা হয়েছিল। এতে কিছুটা সোজা হয়ে তিনি বসতে পারতেন। তবে দাঁড়ানোর কোনো সুযোগ ছিল না। তার কফিনের ওপরে ঢালা হয়েছিল ২০ হাজার পাউন্ড মাটি।

জিমির ইউটিউবে ভক্ত সংখ্যা ২১ কোটি ২০ লাখ। জীবন্ত সাত দিন মাটির নিচে থাকার কারণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিস্টার বিস্টের জনপ্রিয়তা আরও বেড়েছে বলেই জানা গেছে।

ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা গেছে, নির্বিঘ্নে কফিনে সাত দিন কাটিয়েছেন বিস্ট। কোনো রকম অসুবিধার মুখে পড়তে হয়নি তাকে। যখন জিমিসহ কফিন মাটির নিচে রাখা হয়, সেই সময়কার অনুভূতি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি সাত দিনের জন্য নিজেকে এই কফিনে সমর্পণ করেছি।’

কিন্তু চতুর্থ দিন ডোনাল্ডসন বলেন, ‘আমি আশা করি, আগামীকালের দিনটি সহজ হবে। এটি অদ্ভুত একটি অনুভূতি। আমি অনেক ক্লান্ত, কিন্তু কিছু কারণে ঘুমাতে পারছি না। আমি নিজেও জানি না কেন এরকম হচ্ছে। আগে কখনো এমন হয়নি। আমি কেন কাঁদছি, জানি না।’

ইত্তেফাক/এসআর