বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

রয়টার্সের প্রতিবেদন

ডিসেম্বরে আইএমএফ ও এডিবি থেকে ১.১ বিলিয়ন ডলার ঋণ পেতে পারে বাংলাদেশ

আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২৩, ০০:০৫

আগামী মাসের মধ্যে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এবং এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) থেকে ১.১ বিলিয়ন ডলার ঋণ পেতে পারে বলে আশা করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। 

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র মেজবাউল হক বলেন, আমরা ডিসেম্বরের মধ্যে আইএমএফ ও এডিবি থেকে অর্থ পাওয়ার আশা করছি। তবে এই ঋণের ব্যাপারে আইএমএফ এবং এডিবি'র সঙ্গে যোগাযোগ করে কোন সাড়া পায়নি বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

মেজবাউল হক আরও বলেন, গত ৩০ জানুয়ারি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) বোর্ড সভা বাংলাদেশের জন্য ৪.৭ বিলিয়ন (৪৭০ কোটি) ডলার ঋণ মঞ্জুর করেছে। তার অংশ হিসেবে আইএমএফ থেকে ৬৮১ মিলিয়ন ডলার এবং এডিবি থেকে আরও ৪০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ আশা করছে বাংলাদেশ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭ কিস্তিতে ৪২ মাসে এ ঋণ দেওয়া হবে। এ ঋণের গড় সুদের হার ২ দশমিক ২ শতাংশ। বর্ধিত ঋণ সহায়তা বা বর্ধিত তহবিল (ইসিএফ/ইএমএফ) থেকে দেওয়া হবে ৩৩০ কোটি ডলার এবং রেজিলিয়েন্স অ্যান্ড সাসটেইনিবিলিটি ফ্যাসিলিটির আওতায় পাওয়া যাবে ১৪০ কোটি ডলার।

গত অক্টোবে আরও তহবিল প্রকাশের জন্য একটি কর্মী পর্যায়ের চুক্তিতে পৌঁছেছে বাংলাদেশ এবং আইএমএফ 

আবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুসারে, এর মোট বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ গত বছরের এক চতুর্থাংশেরও বেশি কমেছে। নভেম্বর মাসে তা দাঁড়িয়েছে ২৫.১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার দেড় বছরের বেশি সময় ধরে অস্থিরতার পর ডলারের বাজারে স্থিতিশীলতার আভাস দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আমদানি ও স্বল্প মেয়াদি বৈদেশিক ঋণ পরিশোধের দায় কমে আসার কারণে সামনের দিনগুলোতে চাপ আরও কমবে বলেও মূল্যায়ন করেছে ব্যাংক ও আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

ইত্তেফাক/এএইচপি