শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

শীতের শীতলতায় শাল

আপডেট : ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৭:১৫

শীতের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। ভোরে কিংবা রাতে শীতের তীব্রতা অনুভব করা যায়। শাল একটি আভিজাত পোশাক। যুগ যুগ ধরে শীতে শাল পড়ার রীতি রয়েছে। রাজা-মহারাজা ও অনেক অভিজাত শ্রেণির লোক থেকে শুরু করে নিম্ন শ্রেণির সবাই শালের উষ্ণতায় একসময় শীত থেকে রেহাই পেতেন। সেই সময় থেকে মানুষ কাঁধে ঝুলিয়ে নিতেন বাহারি কারুকাজ করা নানান রকমের শাল।

হিম হিম শীত থেকে শুরু করে তীব্র কনকনে শীত সে যাই হোক না কেন শীত থেকে রেহাই পেতে ভারি বা পাতলা নানা রকমের শাল শরীরে জড়িয়ে নেওয়া যেতেই পারে। শাল কোন নারী-পুরুষ ভিত্তিক পোশাক নয়। এটা যে কেউই পরতে পারে। শীত বহুকাল ধরে শীতবস্ত্র হিসেবে পরিচিত হলেও নতুন প্রজন্মের কাছে এটি ফ্যাশন অনুষঙ্গও বটে।

শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, জিন্স, কুর্তি, ফতুয়া, স্কার্ট, গাউন ও পাঞ্জাবিসহ সবকিছুর সঙ্গে মানানসই শাল। ওয়েস্টার্ন থেকে ট্রেডিশনাল সব পোশাকে শাল যেন এক মানানসই শীতবস্ত্র।

বর্তমান সময়ে শালে রয়েছে নানান ধরনের  বৈচিত্র্য। এক একটা পোশাকের সঙ্গে একেক ধরনের শাল পরতেই মানুষ বেশি পছন্দ করছে।  

শালের ধরণ
কাশ্মীরি শাল সম্পূর্ণই সুতা দিয়ে কাজ করা থাকে। কাশ্মীরি শালের মধ্যে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পশমিনা শাল। পশমিনা সংগ্রহ করেন কেউ কেউ নেপাল থেকে। শালের ওপর নানা রকমের ডিজিটাল প্রিন্ট করা হয়। সেই প্রিন্টগুলোতে একেক সময় একেকটা ডিজাইন ফুটিয়ে তোলা হয়। যেমন- গ্রাম বাংলা, যামিনী রায়, দ্য স্ট্যারি নাইট, রিকশা চিত্র, বিখ্যাত সিনেমা, পুতুল নাচ ও নানা ধরনের আরও অনেক ডিজাইন। ব্লকের শালগুলোমূলত একটু পাতলা ধরণের হয়ে থাকে। হিম হিম শীতে পড়ার জন্য একদম উপযুক্ত। ভিস্কস কাপড়ের ওপর নানা ধরনের রং ব্যবহার করে সেই শালগুলোতে ব্লক করা হয়ে থাকে।

এসবের বাইরেও বিদেশি শাল লুধিয়ানা, জয়পুরি, চায়নিজ, থাইল্যান্ড, বার্মিজ ও ইরানি শালও হতে পারে শীত বস্ত্র হিসেবে অনেকের পছন্দ। বিদেশি শালগুলোতে বিভিন্ন বড় বড় ব্র্যান্ডের লোগো ব্যবহার করে সেই শালগুলোর নকশা করা হয়। যেকোনো ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে সেই শালগুলো মানানসই।

রঙ
শালের রঙের ক্ষেত্রে একটু সচেতনতা অবলম্বন করা উচিত। খুব হালকা রঙের শাল ব্যবহার না করাই ভালো। কারণ শীতকালীন কোন বস্ত্র সহজে বা প্রতিদিন ধোঁয়া একটু কঠিন। তাই একটু গাঢ় রঙয়ের শাল শীতকালীন বস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা উচিত। যেমন- লাল, নীল, সবুজ, কালো, বেগুনি এই ধরনের রঙগুলো শীতের শালের জন্য একদম উপযোগী।

কোথায় পাবেন
এ ধরনের শালগুলো বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজ, নিউমার্কেট  ও বিভিন্ন অনলাইন শপ সহ অনেক জায়গায় পেতে পারেন। সর্বনিম্ন ৪০০ টাকা থেকে শুরু করে ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত শাল পাওয়া যায়।

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন