সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মেয়ে সেজে প্রেমিকার পরীক্ষা দিতে গিয়ে যুবক আটক

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২৪, ২০:৩০

প্রেমের জন্য মোগল সম্রাট শাহজাহান তাজমহল বানিয়েছিলেন। হাল আমলের প্রেমিকরা তাজমহল বানাতে না পারলেও প্রেমিকার জন্য নানান সব উদ্ভট কর্মকাণ্ড করে শিরোনামে এসেছেন প্রায়ই। তবে প্রেমিকার হয়ে মেয়ে সেজে পরীক্ষা দিতে আসার ঘটনা একটু বেশিই উদ্ভট। সম্প্রতি এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন প্রতিবেশী ভারতের এক যুবক।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের ফরিদকোটে লিপস্টিক, চুড়ি, টিপ পরে মেয়ে সেজেছিলেন এক যুবক। তার এই ছদ্মবেশী পরিচয়কে পাকা করতে বানিয়েছেন নকল আইডি কার্ডও। এতসব এলাহি কাণ্ড করার উদ্দেশ্য একটাই, প্রেমিকার হয়ে পরীক্ষা দিতে আসা।

কিন্তু কপাল খারাপ যুবকের তাই পরীক্ষকদের হাতে পড়লেন ধরা। এ নিয়ে ব্যাপক হাস্যরস তৈরি হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (১৫ জানুয়ারি)।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অভিযুক্ত ওই প্রেমিকের নাম আংরেজ সিং। তিনি তার প্রেমিকা পরমজিৎ কৌরের ছদ্মবেশ নিয়ে পরীক্ষার হলে গিয়েছিলেন। প্রেমিকা যেন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেন, তাই মেয়ে সেজে পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন তিনি। আইডি কার্ডসহ যাবতীয় নথি জোগাড় করে রেখেছিলেন আগে থেকেই।

কিন্তু পরীক্ষা দেওয়ার আগে বায়োমেট্রিক যন্ত্রে ওই ব্যক্তির আঙুলের ছাপ আসল পরীক্ষার্থীর আঙুলের ছাপের সঙ্গে মেলেনি। আর এতেই ধরা পড়েন সেই তরুণ। পরে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে আংরেজকে গ্রেপ্তার করে পাঞ্জাব পুলিশ।

গত ৭ জানুয়ারি ফরিদকোট জেলার কোটকাপুরার ডিএভি পাবলিক স্কুলে স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের পরীক্ষা চলাকালীন এই ঘটনা ঘটে। পরীক্ষার আগে মেয়েদের বেশে ছবি তুলে পরমজিতের নামে নকল পরিচয়পত্র তৈরি করিয়ে নেন আংরেজ।

এছাড়া পরমজিৎ যেন ভালো নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হতে পারেন, তাই নিজেই পরীক্ষা দিতে যান আংরেজ। কিন্তু পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগে বায়োমেট্রিক যন্ত্রে ধরা পড়ে যান আংরেজ। সঙ্গে সঙ্গে পরমজিতের ফর্মও বাতিল করে দেওয়া হয়। বিষয়টি আরও খতিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইত্তেফাক/এসএটি