মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ঢাবির তিন শিক্ষার্থী পেলেন আলী রীয়াজ স্নাতকোত্তর গবেষণা বৃত্তি ও পুরস্কার

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২৪, ১৫:১৭

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থী পেলেন আলী রীয়াজ স্নাতকোত্তর গবেষণা বৃত্তি ও পুরস্কার। পুরস্কারপ্রাপ্ত সকলেই গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের মোজাফফর আহমদ চৌধুরী অডিটোরিয়ামে এ পুরস্কার ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক রুবায়েত ফেরদৌস, আলী রীয়াজ স্নাতকোত্তর গবেষণা বৃত্তির ট্রাস্টি সফরুন আরা এবং অনলাইনে যুক্ত ছিলেন ড. আলী রীয়াজ। ত‌বে ব্য‌ক্তিগত সমস্যার কার‌ণে সামা‌জিক বিজ্ঞান অনুষ‌দের ডিন প্র‌ফেসর ড. জিয়া রহমান অনুপ‌স্হিত ছি‌লেন। এছাড়া সাংবাদিকতা বিভাগের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থী অনুষ্ঠানে ছিলেন।

আলী রীয়াজ স্নাতকোত্তর গবেষণায় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী হলেন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের  স্নাতকোত্তর ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী তামারা ইয়াসমিন তমা। গবেষণায় বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন, একই বিভাগের স্নাতকোত্তর ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের অর্থী নবনীতা ও একই শিক্ষাবর্ষের মো. নাসিমুল হুদা। অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কারপ্রাপ্ত ও বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের হাতে সমপরিমাণ অর্থের চেক তুলে দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য মাকসুদ কামাল বলেন, আলী রীয়াজ গুড গভার্ন্যান্স এর জন্য নিয়মিত লিখে যাচ্ছেন। তার লেখা আমরা নিয়মিত বিভিন্ন জার্নালে পড়ে থাকি। একই সঙ্গে তিনি তার বিশ্ববিদ্যালয়ের কথাও ভুলে যাননি। একজন শিক্ষক হয়ে শিক্ষার্থীদের গবেষণায় বৃত্তি দিয়ে উৎসাহ দেওয়ার যে চেষ্টা তিনি করে যাচ্ছেন, তাতে করে আমরা তাকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা গবেষণা এনভায়রনমেন্ট পরিবর্তনের চেষ্টা করছি। আমরা ডিপার্টমেন্টগুলোকে মাস্টার্স পর্যায়ে থিসিস চালু করার কথা বলেছি। এমন গবেষণা বৃত্তি শিক্ষার্থীদেরকে গবেষণায় আরো বেশি আগ্রহী করে তুলবে। আমার প্রস্তাব থাকবে, বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের জন্য পাশাপাশি একটি সার্টিফিকেটের ব্যবস্থাও যেন করা হয়।

অনলাইনে যুক্ত থেকে আলী রীয়াজ বলেন, ট্রাস্ট গঠনের লক্ষ্য হলো বিভাগের শিক্ষার্থীদের গবেষণায় উদ্বুদ্ধ করা। যারা আজকে বৃত্তি পেয়েছেন, সবাইকে শুভেচ্ছা। আমি জুমে যুক্ত হতে চেয়েছিলাম, তবে যান্ত্রিক ত্রুটি থাকায় পারেনি। আগামীতে সকলের সাথে দেখা হবে সেই প্রত্যাশা।

সভাপতির বক্তব্যে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদ বলেন, পুরো ট্রাস্ট ফান্ড গঠনের প্রক্রিয়ায় আমি চেয়ারম্যান হিসেবে আলী রীয়াজ স্যারের সঙ্গে পুরোটা সময় যোগাযোগ করেছি। আশাকরি গবেষণায় স্যারের এই উদ্যোগ শিক্ষার্থীদের গবেষণায় আরো বেশি উদ্বুদ্ধ করবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ধীরে ধীরে আরো বেশি পরিমাণে গবেষণার পরিবেশ সৃষ্টি হবে। এত ব্যস্ততার মাঝেও উপাচার্য আজকের অনুষ্ঠানে এসে শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত করেছেন। পুরস্কারপ্রাপ্ত ও বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।

ইত্তেফাক/এসকে