সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিপিএল

আভিশকার ঝড়ে হারের বৃত্তে তামিমের বরিশাল

আপডেট : ২৭ জানুয়ারি ২০২৪, ২০:৪৪

শ্রীলংকান আভিশকা ফার্নান্দোর বিধ্বংসী ব্যাটিং ও আয়ারল্যান্ডের কার্টিস ক্যাম্ফারের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তৃতীয় জয়ের স্বাদ পেয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

আজ নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে চট্টগ্রাম ১০ রানে হারিয়েছে তামিম-মুশফিক-মাহমুদুল্লাহর ফরচুন বরিশালকে। আভিশকা ৫০ বলে অপরাজিত ৯১ রান করেন। ব্যাট হাতে ৯ বলে অনবদ্য ২৯ রানের পর বল হাতে ২০ রানে ৪ উইকেট ও তিনটি দারুন ক্যাচ নেন ক্যাম্ফার। জয় দিয়ে আসর শুরুর পর এই নিয়ে  টানা তিন ম্যাচ হারলো বরিশাল।  

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ দিনের প্রথম ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় চট্টগ্রাম। বরিশালের স্পিনার তাইজুল ইসলামের বলে পরপর তিনটি চার মেরে ৫ বলে ১২ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার তানজিদ হাসান।

তিন নম্বরে নামা উইকেটরক্ষক ইমরানুজ্জামানকে ৪ রানের বেশি করতে দেননি তাইজুল। ২১ রানে ২ উইকেট পতনের পর চট্টগ্রামের হাল ধরেন আরেক ওপেনার আভিশকা ও শাহাদাত হোসেন। ৫৫ বলে ৭০ রান যোগ হবার পর জুটি ভাঙেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্পিনার ইয়ানিক কারিয়া। ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৯ বলে ৩১ রান করে ফিরেন শাহাদাত।

অন্যপ্রান্তে ৪০ বলে টি-টোয়েন্টিতে ২০তম হাফ-সেঞ্চুরির পর ঝড় তুলেন আভিশকা। পরের ১০ বল খেলে ৪১ রান নেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৫টি চার ও ৭টি ছক্কায় ৫০ বলে ৯১ রানে অপরাজিত থাকেন আভিশকা। শেষ দিকে আয়ারল্যান্ডের কার্টিস ক্যাম্ফারের ৯ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ২৯ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৯৩ রানের বড় সংগ্রহ পায় চট্টগ্রাম। এবারের বিপিএলে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। আবিঙ্কা-ক্যাম্ফার ঝড়ে শেষ ৫ ওভারে ৮৪ রান পায় চট্টগ্রাম। বরিশালের তাইজুল ২৬ রানে ২ উইকেট নেন।

১৯৪ রানের বড় টার্গেট খেলতে নেমে বরিশালকে ঝড়ো শুরু এনে দেন ওপেনার পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদ। এতে পাওয়ার প্লেতে ৬০ রান পায় বরিশাল। ১৭ বলে ৫টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৯ রান করে পেসার ওমানের  বিলাল খানের শিকার হন শেহজাদ।

দ্বিতীয় উইকেটে ২৯ বলে ৩৬ রানের জুটি গড়েন তামিম ও সৌম্য সরকার। ১১তম ওভারে প্রথমবারের মত আক্রমনে এসে নিজের প্রথম দুই ওভারে বরিশালের ৪ উইকেট তুলে নেন ক্যাম্ফার। তামিম (৩৩), সৌম্যকে (১৭) মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে (৩) ও কারিয়াকে (৪) শিকার করেন ক্যাম্ফার। ১০ রানে ৪ উইকেট পতনে, দলীয় ১০১ রানে পঞ্চম ব্যাটারকে হারায় বরিশাল।

ষষ্ঠ উইকেটে ২৯ বলে ৫১ রান তুলে বরিশালকে লড়াইয়ে ফেরান মুশফিকুর রহিম ও মেহেদি হাসান মিরাজ। ১৮ ও ১৯তম ওভারে মিরাজ-মুশফিক বিদায় নিলে, জয়ের স্বপ্ন ভঙ হয় বরিশালের। ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৮৩ রান পর্যন্ত যেতে সক্ষম হয়  বরিশাল। মিরাজ ১৬ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৫ ও মুশফিক ২২ বলে ২৩ রান করেন। ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়া  চট্টগ্রামের ক্যাম্ফার ২০ রানে ৪ উইকেট নেন।

ইত্তেফাক/এবি