বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

চিন রাজ্যে মিয়ানমার জান্তার হেলিকপ্টার ভূপাতিত করেছে আরাকান আর্মি

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:৪২

মিয়ানমারের চিন রাজ্যের পালেতওয়া টাউনশিপে রাখাইনের জাতিগত সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মির সঙ্গে দেশটির জান্তা বাহিনীর তীব্র লড়াই চলছে। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) আরাকান আর্মি জানিয়েছে, জান্তা বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে তারা।

মিয়ানমারের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ইরাবতী এ তথ্য জানিয়েছে। সশস্ত্র গোষ্ঠীটি একটি সামরিক হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের পাশে জাতিগত যোদ্ধাদের দাঁড়িয়ে থাকা একটি ছবি পোস্ট করেছে।

আরাকান আর্মির মুখপাত্র খাইং থুখা বলেছেন, পালেতওয়া টাউনশিপে তীব্র লড়াইয়ের সময় আমরা একটি হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করি। পাই মাউন্টেনের জান্তা ফাঁড়ির কাছে গভীর জঙ্গলে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। সম্প্রতি কানখা পর্বতের কৌশলগত কমান্ড ঘাঁটি দখল করার পরই তারা হেলিকপ্টারটি খুঁজে পান বলে জানান।

পালেতওয়া শহরের উত্তরে মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্ত। দুই মাসের লড়াইয়ের পর জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে আরাকান আর্মি চিন ও রাখাইন রাজ্যের সীমান্তে অবস্থিত পালেতওয়া দখল করে নেয়।

মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স আর্মি এবং তাং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির সাথে একত্রে আরাকান আর্মি 'ত্রিপক্ষীয় ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের সদস্য' গঠন করেছে। তারা অক্টোবরের শেষের দিকে উত্তরাঞ্চলীয় শান রাজ্যে অপারেশন-১০২৭ নামে পরিচিত একটি বড় আকারের সরকারবিরোধী আক্রমণ শুরু করে। অভিযানের অংশ হিসেবে আরাকান আর্মি নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে রাখাইন রাজ্যে জান্তা সেনাদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি আরাকান আর্মি তাদের টেলিগ্রামে বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারের পাশে তিনটি সশস্ত্র গোষ্ঠীর যোদ্ধাদের দাঁড়িয়ে থাকার ছবি পোস্ট করে। সে সময় আরাকান আর্মি হেলিকপ্টারটি কীভাবে ভূপাতিত করা হয়েছে, সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। কী ধরনের অস্ত্র দিয়ে এটি ভূপাতিত করা হয়েছে, তাও এখনো জানায়নি।

এর আগে জানুয়ারির শেষের দিকে মিয়ানমারের কারেন রাজ্যে সরকারবিরোধী 'কারেন সশস্ত্র গোষ্ঠী' এবং তাদের মিত্র প্রতিরোধ বাহিনী মিয়ানমারের জান্তা সামরিক হেলিকপ্টারকে গুলি করে ভূপাতিত করে। এতে জান্তা বাহিনীর একজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এবং আরও চার কর্মকর্তা নিহত হন। এ নিয়ে গত এক মাসের মধ্যে প্রতিরোধ বাহিনী ভূপাতিত করলো তিনটি বিমান। আর এ পর্যন্ত মিয়ানমারজুড়ে প্রতিরোধ শক্তি তিনটি যুদ্ধবিমান ও ছয়টি হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে।

ইত্তেফাক/এসকে