বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন

পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্রদের এগিয়ে থাকার আভাস

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:২৮

পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় বিকাল ৫টায়। এখন পর্যন্ত অনানুষ্ঠানিক ফলাফলে দেখা গেছে বেশ কয়েকটি নির্বাচনী এলাকায় কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই -ইনসাফ দলের নেতা ইমরান খান সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এগিয়ে আছেন। পিটিআইএর ব্যারিস্টার গহর দাবি করেছেন যে দলটি ১৫০টিরও বেশি আসনে এগিয়ে রয়েছে।

দেশটির নির্বাচন কমিশন বলছে পিকে-৭৬ নির্বাচনী এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল্লাহ খান ১৮ হাজার ৮শ ৮৮টি ভোট পেয়েছেন। অন্যদিকে পিকে-৬ নির্বাচনী এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফজল হাকিম খান পেয়েছেন ২৫ হাজার ৩৩০ ভোট। তারা দুজনই পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী।

এদিকে ভোটের পুরো ফল ঘোষণায় কেন এমন বিলম্ব হচ্ছে জানতে পাকিস্তান নির্বাচন কমিশনের (ইসিপি) সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল রয়টার্স। তবে তাতে কোনো সাড়া দেয়নি ইসিপি।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির জাতীয় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার ১০ ঘণ্টা পরও ফলাফল সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো খবর পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে প্রশ্ন উঠেছে ভোট গণনা নিয়ে। নির্বাচন পর্যবেক্ষকেরা বলছেন, ফল ঘোষণায় এমন বিলম্ব অস্বাভাবিক। কারণ পাকিস্তানের অতীতের নির্বাচনগুলোতে কখনোই এতো বিলম্ব হয়নি। রাত ফুরাবার আগেই বোঝা যায় কোন দল বিজয়ী। তবে এবারে চিত্রটা ভিন্ন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে ভোটের ফল আসছে খুব ধীরগতিতে।

টেলিভিশন চ্যানেলের পাশাপাশি নিউজ পোর্টাল ও অন্যান্য প্লাটফর্মে বেসরকারি ফলাফল প্রকাশ করা হবে। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হবে তিন ধাপে। অস্থায়ী ফলাফল, ফলাফল সমন্বয় এবং ফলাফল ঘোষণা।

এর আগে অতিরিক্ত মহাপরিচালক (এডিজি) নিঘাত সাদিক (৮ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, প্রিজাইডিং অফিসারদেরকে শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ২টার মধ্যে নির্বাচন কমিশনে নির্বাচনের ফলাফল পাঠাতে হবে।

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন