শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে নারী পাচারকালে গ্রেপ্তার ১  

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:০৯

সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিনই পাচার হচ্ছে শত শত নারী ও শিশু। গত ৪ ফেব্রুয়ারি হাজারীবাগ থানাধীন মনেশ্বর রোড থেকে দুই নারী নিখোঁজ হওয়াকে কেন্দ্র করে তদন্তে ডিবি পুলিশ। গোয়েন্দা অনুসন্ধান ও সোর্সের তথ্যের ভিত্তিতে সাতক্ষীরার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য কবিরুল হোসেনকে (৩৬) আটক করেছে ডিবি। 

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান মোহাম্মদ হারুন-অর রশীদ।  

ডিবি রমনা বিভাগের ডিসি হুমায়ুন কবীরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ফজলে এলাহীর নেতৃত্বে গোয়েন্দা রমনা বিভাগের ধানমন্ডি জোনাল টিম এই অভিযান পরিচালনা করে।  

এ বিষয়ে ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ জানান, বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকা সাতক্ষীরার শুনাই নদীর তীর থেকে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য কবিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় ভুক্তভোগী সিমা আক্তার (২৭) ও তার ছেলে (২) নবাব শেখকে উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। 

আটক আসামি কবিরুল ও তার ভাই আনোয়ারুল মিলে দীর্ঘদিন ধরে মানব পাচার করে আসছেন। তারা এ পর্যন্ত শতাধিক নারীকে পাচার করেছে। 

ভুক্তভোগী নারী সিমা আক্তার জানান, স্বামীর সঙ্গে তার ডিভোর্স হয়েছে। অনলাইনে উচ্চ বেতনে কাজের অফার পেয়ে সেখানে মেসেজ করেন। পরবর্তীতে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য আনোয়ারুল তার সঙ্গে যোগাযোগ করে ভলো চাকরি দেওয়া হবে বলে জানায়। সেই লোভে তিনি তাদের কথামত এখানে আসেন। 

ডিবি প্রধান জানান, অন্য পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে অভিযান পরিচালনা অব্যাহত আছে। 

ইত্তেফাক/ডিডি