বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

মিয়ানমারে নতুন আইন

প্রাপ্তবয়স্ক সকল তরুণ-তরুণীকে সেনাবাহিনীতে যোগদান বাধ্যতামূলক

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৩০

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীতে বাধ্যতামূলক যোগ দেয়ার আইন ঘোষণা করেছে দেশটির জান্তা সরকার। প্রাপ্তবয়স্ক সব নারী-পুরুষের সেনাবাহিনীতে যোগদান বাধ্যতামূলক ঘোষণা করা হয়েছে দেশটিতে। এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এই আইন অনুযায়ী, দেশের সব তরুণ-তরুণীকে বাধ্যতামূলকভাবে সামরিক বাহিনীতে চাকরি করতে হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির বিভিন্ন এলাকায় স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াইরত সশস্ত্র বিদ্রোহীদের মোকাবিলায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী যখন হিমশিম খাচ্ছে, তখনই এমন ঘোষণা এল। সেনাবাহিনীর এমন আইন জারির ফলে এটা প্রতীয়মান যে, মিয়ানমারের সামরিক জান্তা আসলেই নাজুক অবস্থায় আছে।

সামরিক জান্তা শনিবার ঘোষণা দেয় যে, ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সী পুরুষ এবং ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সী নারীদের জন্য সেনাবাহিনীতে সামরিক কমান্ডে কমপক্ষে দুই বছর দায়িত্ব পালন করতে হবে। এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। এক বিবৃতিতে সামরিক জান্তা বলেছে, সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ধারা, উপধারা, প্রক্রিয়া, নির্দেশ, নোটিফিকেশন এবং নির্দেশনা জানিয়ে বিবৃতি দেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

২০২১ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে বেসামরিক সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। তখন থেকেই তারা বিরোধিতার মুখে। তবে সম্প্রতি জাতিগত বিদ্রোহীদের তীব্র চাপে রয়েছে সামরিক জান্তা। বিদ্রোহীদের পাশাপাশি গণতন্ত্রপন্থী যোদ্ধারাও জান্তার বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছে। হামলায় সেনাসদস্যদের প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। একের পর এক যুদ্ধে বিদ্রোহীদের কাছে হেরে যাচ্ছে তারা। বাংলাদেশ সীমান্তের সঙ্গে রাখাইনে সামরিক জান্তাকে একের পর এক পরাস্ত করছে আরাকান আর্মি। 

ইত্তেফাক/এএইচপি