বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

হাবিপ্রবিতে ফসল চুরিতে ব্যাহত হচ্ছে গবেষণা

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:০০

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) গবেষণা মাঠের ফসল চুরি হয়ে যাওয়ায় গবেষণা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। চুরি প্রতিরোধে কোনো কার্যকরী উপায় না পাওয়ায় গবেষণায় আগ্রহ হারাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। 

কে বা কারা প্রতিনিয়ত গবেষণা মাঠের ফসল চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্ট গবেষকরা। তারের বেড়া ও নেট দিয়ে গবেষণা মাঠ ঘিরে রেখেও আটকানো যাচ্ছে না ফসল চুরি।

কৃষি অনুষদের বায়োকেমিস্ট্রি এবং মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও গবেষক ড. মো আজিজুল হক অভিযোগ করে বলেন, ভালো গবেষণার ফল আসার পর ধরে রাখতে পারলাম না যেইটা সত্যিই দু:খজনক। চারপাশে নেট দিয়ে ঘিরে রাখার পরও জমির পাশে নোটিশ দিয়ে রেখেছিলাম যাতে কেউ গবেষণার টমেটো সংগ্রহ না করে । এইসব তোয়াক্কা না করেই গতকালই এক মণের অধিক টমেটো চুরি হয়ে গেছে। আমার পরিকল্পনা ছিল এই টমেটো থেকে বীজ সংগ্রহ করে গবেষণায় সামনের দিকে অগ্রসর হবো। কিন্তু জৈব নিরাপত্তা না পাওয়ায় এই গবেষণার উদ্দেশ্যে পূরণ করতে পারলাম না।

ইতোপূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মাঠ থেকে টমেটো, ক্যাপসিকাম ও পেঁয়াজ চুরি হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। প্রতিবছরই এইরকম গবেষণার ফসল নষ্ট হওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায় ।

আরেক গবেষক ফসল শরীরতত্ত্ব ও পরিবেশ বিভাগের গবেষক অধ্যাপক ড. রবিউল ইসলাম বলেন, যে সমস্ত ব্যক্তি গবেষণার স্যাম্পল তুলে নিয়ে গিয়ে গবেষণাকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে এটা থেকে যেন সরে আসে । সবার প্রতি একটাই আহ্বান থাকবে যে গবেষণার স্যাম্পল যাতে নষ্ট না করে। 

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. মামুনুর রশীদ বলেন, ফসল চুরির ব্যাপারে আমি এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি।

মাস্টার্স ও পিএইচডিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা দীর্ঘ সময় ব্যয় করে শ্রম দিয়ে গবেষণা মাঠে গবেষণার ফসল উৎপাদন করেও চুরি হয়ে যাওয়ার কারণে গবেষণার ফলাফল তৈরিতে ব্যাঘাত ঘটার যার ফলে বিড়ম্বনায় পড়েন তারা।

ইত্তেফাক/এআই