সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

দেশে কর সনাক্তকরণ নম্বরধারীদের সংখ্যা  ১ কোটি ছাড়িয়েছে

আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:২৭

দেশে ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নম্বর-হোল্ডার (টিআইএন) বা কর শনাক্তকরণ নম্বরধারীদের সংখ্যা এক কোটি ছাড়িয়েছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সূত্র জানিয়েছে এর মধ্যে প্রায় দেড় লাখের মতো কোম্পানি ও ফার্ম, বাদবাকিরা ব্যক্তি বা কর শনাক্তকরণ নম্বর বা টিআইএনধারী। 

বর্তমানে টিআইএন নেওয়া এবং রিটার্ন সাবমিশনের হার বেড়েছে। বিশেষ করে এনবিআর ৪৩টি সেবা নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রুফ অব সাবমিশন অব রিটার্ন (পিএসআর) বাধ্যতামূলক করায় অনেকে বাধ্য হচ্ছে টিআইএন নিতে। কারণ টিআইএন ছাড়া রিটার্ন সাবমিশন করা বা এর প্রমাণ দেখাতে পারবে না। এজন্য টিআইএনধারী বাড়ছে, রিটার্ন সাবমিশনও বাড়ছে। 

এনবিআরের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৩ সালে দেশে টিআইএনধারী ছিল ১৬ লাখের মতো। সেই হিসেবে, এক দশকে টিআইএন-হোল্ডার বেড়েছে ছয় গুণেরও বেশি। অবশ্য এনবিআরের বর্তমান বিধান অনুযায়ী, প্রায় সব টিআইএন-ধারীর ট্যাক্স রিটার্ন সাবমিট করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু এনবিআরের হিসাব অনুযায়ী, রিটার্ন সাবমিশন হয়েছে ৩৬ লাখের মতো। 

অর্থাৎ টিআইএন-ধারীর প্রায় দুই-তৃতীয়াংশই রিটার্ন সাবমিট বা তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব সরকারকে জানাচ্ছেন না। তবে এনবিআর আশা করছে আগামী জুনের মধ্যে রিটার্ন জমা ৪০ লাখে পৌঁছাবে। ২০২০ সালে ট্যাক্স রিটার্ন সাবমিশনের সংখ্যা ছিল ২১ লাখ।

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন