বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সংসদ কার্যকর হতে কোনো বাধা নেই: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:৩৯

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদ গঠন হয়েছে, ভোটার উপস্থিতিও ভালো ছিল। নির্বাচনে ২৮টি রাজনৈতিক দল অংশ নিয়েছে। বর্তমানে সংসদে বিরোধী দল আছে, স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আছেন তারা সরকারের কাজের সমালোচনা করবেন। সংসদ কার্যকর হতে কোনো বাধা নেই।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের নারী প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন প্রতিহত করার দুঃসাহস কারও ছিল না। শেষ পর্যন্ত আমরা সতর্ক পাহারায় ছিলাম। এখনও সতর্ক পাহারায় আছি। যদি কেউ এই নির্বাচন নিয়ে কোনো ষড়যন্ত্র, সন্ত্রাসমূলক কার্যক্রম করে সেটা আমরা অবশ্যই প্রতিরোধ করবো। আমাদের উদ্বেগ নেই, এটা নিয়ে কোনো চিন্তাও নেই। মূল দল আওয়ামী লীগ, আমাদের কোনো নেতা, কোনো কর্মী, এ যাবৎকালে এ বিষয় নিয়ে কোনো প্রশ্ন তোলেননি।

সংরক্ষিত আসনের নারী প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা

আজ বিকাল ৩টায় নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে রিটানিং কর্মকর্তার কাছে সকল প্রার্থীর হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দেন ওবায়দুল কাদের। আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্তরা হলেন- রেজিয়া ইসলাম (পঞ্চগড়), দ্রোপদী দেবী আগরওয়াল (ঠাকুরগাঁও), আশিকা সুলতানা (নীলফামারী), আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা (জয়পুরহাট), কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি (নাটোর), জারা জেবিন মাহবুব (চাপাইনবাবগঞ্জ), রুনু রেজা (খুলনা), ফরিদা আক্তার বানু (বাগেরহাট), ফরজানা সুমি (বরগুনা), খালেদা বাহার বিউটি (ভোলা), নাজনীন নাহার রশীদ (পটুয়াখালী) ফরিদা ইয়াসমিন (নরসিংদী), উম্মি ফারজানা ছাত্তার (ময়মনসিংহ), নাদিয়া বিনতে আমিন (নেত্রকোণা), মাহফুজা সুলতানা মলি (জয়পুরহাট), আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য পারভীন জামান কল্পনা (ঝিনাইদহ), আরমা দত্ত (কুমিল্লা), লায়লা পারভীন (সাতক্ষীরা), সদ্য সাবেক শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান (খুলনা), বেদৌড়া আহমেদ সালাম (গোপালগঞ্জ), শবনম জাহান (ঢাকা), পারুল আক্তার (ঢাকা), সাবেরা বেগম (ঢাকা), আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পাদক শাম্মী আহমেদ (বরিশাল), নাহিদ ইজাহার খান (ঢাকা), ঝর্ণা হাসান (ফরিদপুর), সদ্য সাবেক মহিলা ও শিশু প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেছা (মুন্সীগঞ্জ), শাহেদা তারেখ দীপ্তি (ঢাকা), অনিমা মুক্তি গোমেজ (ঢাকা), শেখ আনার কলি পুতুল (ঢাকা), মাসুদা সিদ্দিক রোজি (নরসিংদী), আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য তারানা হালিম (টাঙ্গাইল), আওয়ামী লীগের শিক্ষা সম্পাদক শামসুন নাহার (টাঙ্গাইল), মেহের আফরোজ চুমকি (গাজীপুর), অপরাজিতা হক (টাঙ্গাইল), হাছিনা বারী চৌধুরী (ঢাকা), নাজমা আক্তার (গোপালগঞ্জ), রুমা চক্রবর্তী (সিলেট), আওয়ামী লীগের কৃষি সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী (লক্ষ্মীপুর), আশ্রাফুননেছা (লক্ষ্মীপুর), কানন আরা বেগম (নোয়াখালী), শামীমা হারুন লুবনা (চট্টগ্রাম), ফরিদা খানম (নোয়াখালী), দিলোয়ারা ইউসুফ (চট্টগ্রাম), আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক ওয়াসিকা আয়শা খান (চট্টগ্রাম), ডরথি তঞ্চঙ্গা (রাঙামাটি), আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য সানজিদা খানম (ঢাকা), নাছিমা জামান ববি (রংপুর)।

ইত্তেফাক/এসকে