বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

পাকিস্তানের বিমান হামলায় নিহত ৮, অভিযোগ আফগানিস্তানের

আপডেট : ১৮ মার্চ ২০২৪, ১৬:৩২

আফগানিস্তানের সীমান্ত অঞ্চলে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বেপরোয়া বিমান হামলায় সোমবার ৮ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের সবাই নারী ও শিশু। তালেবান সরকারের মুখপাত্র এ কথা বলেছেন। খবর এএফপি।

২০২১ সালে তালেবান সরকার ক্ষমতা দখলের পর থেকে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যে সীমান্ত উত্তেজনা বেড়েছে। ইসলামাবাদ দাবি করেছে, জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো প্রতিবেশী দেশ থেকে নিয়মিত হামলা চালাচ্ছে।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, পাকিস্তানের বিমান খোস্ত ও পাকতিকা প্রদেশের সীমান্তের কাছে ভোর ৩টার দিকে বেসামরিক বাড়িতে বোমা বর্ষণ করেছে।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, তালেবান সরকার এ ধরনের হামলার তীব্র নিন্দা জানায়। এই বেপরোয়া পদক্ষেপকে আফগানিস্তানের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন হিসেবে মনে করে তালেবান।

হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ‘এই ধরনের ঘটনার পরিণিতি খুব খারাপ হতে পারে যা পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাকিস্তানের সীমান্ত অঞ্চলের একজন স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা এএফপিকে বলেছেন, আফগান বাহিনী পাকিস্তান অঞ্চলকে লক্ষ্য করে, এমন অভিযোগের জবাবে পাক সামরিক বাহিনী এই হামলা চালিয়েছে।

তিনি আরও বলেছেন, ‘সীমান্তে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যে সংঘর্ষ অব্যাহত থাকায় কুররাম ও উত্তর ওয়াজিরিস্তানের কিছু এলাকা খালি করার জন্য মসজিদে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।’

শনিবার পাকিস্তানের ভূখণ্ডের অভ্যন্তরে একটি হামলায় সাত পাকিস্তানি সেনা নিহত হওয়ার পরে এই হামলা চালানো হয়েছে। ওই হামলার জন্য পাক রাষ্ট্রপতি আসিফ আলী জারদারি প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছিলেন।

আফগানিস্তান-পাকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকায় জঙ্গি গোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) দীর্ঘদিনের ঘাঁটি। বিশ্লেষকরা বলছেন, তালেবানের ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে সাবেক উপজাতীয় এলাকায় জঙ্গিরা সাহসী হয়ে উঠেছে। নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ক্রমবর্ধমান অভিযান চালাচ্ছে টিটিপি ।

তবে পাকিস্তানি জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়ার কথা অস্বীকার করেছে তালেবান। ২০২২ সালে তালেবান কর্তৃপক্ষ বলেছিল, আফগান সীমান্তের দিকে পাকিস্তানি সামরিক হেলিকপ্টার হামলায় কমপক্ষে ৪৭ জন নিহত হয়েছিল।

টিটিপি সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে এএফপিকে বলেছে, পাকতিকা ও খোস্তে হামলায় কমপক্ষে নয় জন নিহত হয়েছে। পাকতিকার বারমাল জেলার একটি বাড়িতে হামলা হয়েছে যেখানে দুই নারী ও সাত শিশু নিহত হয়েছে। আরও এক শিশু আহত হয়েছে। খোস্তের পাসা মেলা এলাকায় বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনাও ঘটেছে।

ইত্তেফাক/এসএটি