রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ঘোড়ায় চড়ে ভিক্ষা করা জালু মিয়া পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার

আপডেট : ২২ মার্চ ২০২৪, ১৯:২৮

ভোলার বোরহানউদ্দিনে ঘোড়ায় চড়ে ভিক্ষা করা সেই জালু মিয়া ঘর তৈরির জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থকে পেলেন সরকারি টিন। শুক্রবার (২২ মার্চ) ইউএনও রায়হান-উজ্জামান তার কাছে টিন হস্তান্তর করেন। ঘর নির্মাণের জন্য টিন পেয়ে আনন্দিত জালু মিয়া।

জালু মিয়া ওরফে জালাল আহমেদ। সাচড়া ইউনিয়নের দরুন গ্রামের মৃত আ. মতলেবের ছেলে। তার কোনো জায়গা-জমি ও সন্তান নেই। নিজ বাড়ি ছেড়ে একই ইউনিয়নের পাশের চরগঙ্গাপুর গ্রামে বোনের বাড়িতে বৃদ্ধা স্ত্রীকে নিয়ে আশ্রয় নেন। নারকেলের পাতা ও পলিথিন দিয়ে ঝুপড়ি ঘরে অসহায় বসবাস তার। ভিক্ষা করে চলতো সংসার।

বয়সের ভার আর নানা রোগ-ব্যাধি ভর করছে শরীরে। পায়ে হেঁটে ভিক্ষা করতে পারছেন না। এ জন্য চার বছর আগে ভিক্ষার টাকা জমিয়ে ও পালিত বাছুর বিক্রির টাকায় একটি ঘোড়া কেনেন। এখন সেটা দিয়ে এলাকায় ঘুড়ে ঘুড়ে ভিক্ষা করেন।

বিষয়টি ইত্তেফাকসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তখন অনেকে পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিলেও কেউ এগিয়ে আসেনি। বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান-উজ্জামান কয়েক মাস আগে তাকে সহযোগীতার আশ্বাস দেন। যার ধারাবাহিকতায় ঘর নির্বাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ তহবিল থেকে ২৭টি টিন দেওয়া হয়।

টিন পেয়ে জালু মিয়া বলেন, কয়েক বছর ধরে নারকেল পাতা ও পলিথিন দিয়ে ঝুপড়ি ঘরে বাস করে আসছি। একটু ঝড়-বৃষ্টি হলেই পানি পড়ে। তখন ঘরে থাকা যায় না। টিন পেয়ে আমি অনেক খুশি। এখন বৃষ্টির পানি আর গায়ে পড়বে না।

সাচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিবুল্যাহ মৃধা জানান, জালু মিয়া খুবই অসহায়। নির্বাহী কর্মকর্তাকে টিন প্রদানের জন্য ধন্যবাদ।

ইউএনও রায়হান-উজ্জামান বলেন, জালু মিয়াকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ঘর নির্মাণের জন্য ৩ বান্ডিল টিন দেওয়া হয়েছে। তার এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

ইত্তেফাক/এসকে