মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

এবার কেজরিওয়ালের গ্রেপ্তার নিয়ে মন্তব্য করলো জাতিসংঘ

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২৪, ১৭:১৯

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার মন্তব্য করেছে জাতিসংঘ। দেশটিতে লোকসভা ভোটের আবহে গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি নিয়ে পশ্চিমারা সংশয় প্রকাশ করার পর বৃহস্পতিবার রাতে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিকও জানান, তাদের আশা, ভোটের সময় অন্য দেশের মতো ভারতেও রাজনৈতিক ও নাগরিক সমাজের প্রত্যেকের অধিকার রক্ষিত হবে। সবাই যেন সুষ্ঠুভাবে, মুক্ত মনে ভোট দিতে পারেন।

কেজরিওয়ালের গ্রেপ্তার ও হেফাজতে রাখা নিয়ে বৈশ্বিক যে প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে তাতে ভারত বিব্রত হলেও কূটনৈতিক পর্যায়ে তার জবাব দেওয়া হচ্ছে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দিল্লিতে নিযুক্ত জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের শীর্ষ কূটনীতিকদেরও তলব করে এ ধরনের মন্তব্যের প্রকিক্রিয়া জানিয়েছে।

তলব সত্ত্বেও ফের বিষয়ে সংশয় প্রকাশ ও মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন তাদের সঙ্গে যুক্ত হলো জাতিসংঘও। গতকাল (বৃহস্পতিবা) জাতিসংঘে স্টিফেন ডুজারিকের কাছে কেজরিওয়ালের গ্রেপ্তারসংক্রান্ত প্রশ্নে কংগ্রেস দলের ব্যাংক হিসাব জব্দ করার বিষয়টিও উত্থাপন করা হয়।

এসময় বলা হয়, ভোটের ঠিক আগে কেজরিওয়ালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কংগ্রেসের ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। নাগরিক অধিকার আন্দোলনকর্মীরা মনে করছেন, এভাবে বিরোধীদের দমন করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতি জাতিসংঘ কীভাবে দেখছে?

স্টিফেন ডুজারিক প্রশ্নটির না এড়িয়ে মুক্ত মনে ভোট দেওয়া এবং রাজনৈতিক ও নাগরিক সমাজের অধিকার রক্ষিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ভারতের পক্ষে অবশ্যই তা বিব্রতকর।

প্রথম দফায় সাত দিন হেফাজতের মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার কেজরিওয়ালকে দিল্লির নিম্ন আদালতে পেশ করা হয়। সেখানে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) হেফাজতের মেয়াদ আরও সাত দিন বাড়ানোর দাবি জানায়। বিচারক চার দিন মেয়াদ বৃদ্ধি করেন। আগামী ১ এপ্রিল তাকে আবার হাজির করতে হবে। তবে তার আগে কেজরিওয়ালকে অনুমতি দেন এজলাসে নিজের হয়ে সওয়াল করার। অনুমতি পেয়ে কেজরিওয়াল বলেন, তাকে ফাসানোই ইডির একমাত্র লক্ষ্য।

ইত্তেফাক/এসএটি