মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ইনকাম ট্যাক্সের নোটিসের পর রাহুল

‘সরকার পরিবর্তনের পর গণতন্ত্র ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২৪, ১৯:৫৮

সরকার পরিবর্তন হলে যারা গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে তাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ১৮০০ কোটি রুপির ইনকাম ট্যাক্সের নোটিস পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় শুক্রবার এমনটা বলেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। খবর এনডিটিভির।

সম্প্রতি ভারতীয় কংগ্রেস দলের কাছে ১৮০০ কোটি রুপি চেয়ে ইনকাম ট্যাক্সের নোটিস পাঠানো হয়েছে। লোকসভা ভোটের আগে এ ধরনের পদক্ষেপকে বিজেপির ‘কর সন্ত্রাস’ বলে অভিহিত করেছে কংগ্রেস।

নতুন এই করের নোটিসটি ২০১৭-১৮ থেকে ২০২০-২১ সালের মূল্যায়ন বছরের জন্য। এতে জরিমানা ও সুদ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিক্রিয়ায় রাহুল গান্ধী তার অফিশিয়াল এক্স অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘যখন সরকার পরিবর্তন হবে, যারা গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে যাতে কেউ আবার এসব করার সাহস না পায়। এটাই আমার প্রতিশ্রুতি।’

আয়কর কর্তৃপক্ষ ২০০ কোটি রুপি জরিমানা আরোপ করা ও তার তহবিল স্থগিত করার পরে কংগ্রেস ইতিমধ্যেই তহবিল সংকটের সম্মুখীন হয়েছে৷ এতে উচ্চ আদালত থেকে কোনো স্বস্তির রায় পাওয়া যায়নি। লোকসভা নির্বাচনের কয়েক সপ্তাহ আগে কংগ্রেস সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে।

রাহুল গান্ধীর অভিযোগ, আয়করের মতো কেন্দ্রীয় বিভাগগুলো বিজেপির নির্দেশে কাজ করছে। কর দাবি বাতিল করতে কংগ্রেস দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন বলেছেন, বিজেপি গত কয়েক বছরে হাজার হাজার মানুষের কাছ থেকে অনুদান পেয়েছে এবং তাদের আয়করও হিসাব করা উচিত।

কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ সাংবাদিকদের বলেন, বিজেপিও আয়কর আইনের গুরুতর লঙ্ঘন করছে। কর বিভাগকে বিজেপির কাছ থেকে ৪ হাজার ৬১৭ কোটি রুপি আদায়ের অনুরোধ করছি।

কংগ্রেস কোষাধ্যক্ষ অজয় মাকেন বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলোকে ফর্ম ২৪ক পূরণ করতে হবে। ফর্মে দুটি মৌলিক ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে হবে— দাতাদের নাম ও ঠিকানা। আমরা নির্বাচন কমিশনে বিজেপির সকল জামানত বিশ্লেষণ করেছি। প্রতি বছর দলটি দুর্বল হয়ে পড়েছে।

রমেশের অভিযোগ, ‘প্রিপেইড, পোস্টপেইড, পোস্ট-রেড ঘুষ ও শেল কোম্পানিগুলো’ ব্যবহার করে নির্বাচনী বন্ড কেলেঙ্কারির মাধ্যমে ৮ হাজর ২০০ কোটি রুপি সংগ্রহ করেছে বিজেপি। আর কংগ্রেসকে আর্থিকভাবে পঙ্গু করার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু আমরা হেরে যাব না।

ইত্তেফাক/এসএটি