মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নির্জন দ্বীপে আটকে থেকে যেভাবে অভিনব কায়দায় দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন তারা

আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৫

অভিনব কায়দায় ‘হেল্প’ লিখে নির্জন দ্বীপে আটকে পড়া উদ্ধার পেলেন তিনজন নাবিক। নৌ ভ্রমণে বেরিয়ে ওই দ্বীপে আটকে পড়ার পর পাম গাছের পাতা দিয়ে সৈকতে ‘হেল্প’ বা ‘সাহায্য’ লিখে রেখেছিলেন তারা। সেটা দেখতে পেয়ে তাদের উদ্ধার করেছে মার্কিন নৌ-বাহিনী। ওই তিন ব্যক্তি প্রায় ৯দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন।

২০ ফুটের একটি নৌকায় দ্বীপটিতে গিয়েছিলেন তারা। কিন্তু সেটি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তারা সেখানে আটকে যান। বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে বিবিসি ও এনডিটিভি।

বিবিসি আরও জানিয়েছে, উদ্ধারকৃতরা গুয়াম থেকে ৬৬৮ কিলোমিটার দূরের নির্জন জনমানববিহীন দ্বীপ পিকেলোট আটোলে গিয়েছিলেন। তবে সেখান থেকে আর তারা ফিরে আসছিলেন না।

কোস্টগার্ড এক বিবৃতিতে বলেছে, যারা নিখোঁজ হয়েছিলেন তারা সবাই দক্ষ নাবিক ছিলেন। তাদের বয়স ৪০ বছরের কাছাকাছি।

গত স্টার সানডেতে (৩১ মার্চ) এই তিনজন নির্জন দ্বীপটির উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সেখানে পৌঁছানোর পর নির্ধারিত সময়ে আর তার ফিরে আসেননি।

এরপর ওই ব্যক্তিদের এক আত্মীয় বিষয়টি গুয়ামে অবস্থিত মার্কিন কোস্টগার্ডের যৌথ উদ্ধার সাব-স্টেশনে অবহিত করে জানান, তার তিন চাচা নিখোঁজ রয়েছেন। এমন তথ্য পাওয়ার পরই উদ্ধার অভিযান শুরু করে কোস্টগার্ড।

উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন লেফটেনেন্ট চেলসি গার্সিয়া। তিনি জানান, ওই তিন ব্যক্তি পাম গাছের পাতা দিয়ে ‘হেল্প’ লেখাটি লিখেছিলেন। খোঁজাখুঁজির সময় আকাশ থেকে তা দৃশ্যমান হয়।

তাদের শনাক্ত করার পর প্রয়োজনীয় রশদ ও একটি রেডিও পাঠানো হয়। পরবর্তীতে ওই দ্বীপটিতে রওনা দেয় কোস্টগার্ডের একটি জাহাজ।

ইত্তেফাক/এসটিএম