বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নাসিরনগরে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৫৫

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে নারীসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সংঘর্ষে আহতরা হলেন- ফান্দাউক ইউনিয়নের মো. নূরে আলম, মো. সজল, নাছির মিয়া, সাগর মিয়া, শিমুল মিয়া, তফু মিয়া, দিদার মিয়া, কাজল মিয়া, ফসাল শিয়া, হৃদয় মিয়া ও নূরেম বেগম,গোলাম নূর, রুবেল মিয়া, আলা উদ্দিন, শাহনাজ বেগম, জিনিয়া বেগম, ফাতেমা বেগম ও রুজিনা বেগম।

আহতদের পুলিশ পাহাড়ায় নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) ফান্দাউক গ্রামের দুই পক্ষের মধ্যে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করা হয়। সে সময় ম্যাচ চলাকালীন দুই তরুণের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তারা সংঘর্ষে জড়ায়। এর পর সংঘর্ষের বিষয়টি বড়দের কাছে পৌঁছায়। এর নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এর মধ্যে একটি পক্ষকে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল আওয়াল ও অপর পক্ষটিকে মো. রিপন মিয়া সমর্থন দেয়। পরে বিষয়টি স্থানীয়দের মাধ্যমে বিচার-সালিশের মাধ্যমে নিষ্পত্তির আলোচনাও হয়।  

পরের দিন শুক্রবার জুমার নামাজ পড়তে সাধুপাড়া নূরে মদিনা মসজিদে যায় আওয়াল মিয়ার পক্ষের লোকজন। নামাজ থেকে বের হওয়ার পর আওয়াল মিয়ার পক্ষের লোকদের ওপর অতর্কিত হামলা করে রিপন মিয়ার লোকজন। এ সময় বিষয়টি দ্রুত গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়ায়। সংঘর্ষে নারীসহ দুই পক্ষের  ২০জন আহত হয়।  

নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সোহাগ রানা বলেন, ক্রিকেট খেলা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

ইত্তেফাক/এসটিএম