সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সেপটিক ট্যাংকে সুইপারকে বাঁচাতে গিয়ে মারা গেলেন মালিকও

আপডেট : ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০৫

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে সেপটিক ট্যাংকে নেমে সুইপারকে বাঁচাতে গিয়ে বাড়ির মালিকেরও মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে বাড়ির মালিকের নাম রিয়াদ হোসেন। সুইপারের নাম হযরত আলী ওরফে খোকন (৩৮)। রোববার (১৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রাখালিয়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

রিয়াদ একই এলাকার নুরুল হক পাটোয়ারী বাড়ির নুরনবী লেদার ছেলে ও স্থানীয় বাবুরহাট বাজারের ওয়ার্কশপ ব্যবসায়ী। খোকন কুমিল্লা জেলার লাকসাম পৌরশহরের মিস্রি এলাকার রুস্তম আলী মোল্লার ছেলে। তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে পরিবার নিয়ে রায়পুরের বামনী ইউনিয়নের চৌধুরী বাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, বিকেলে একজন সুইপার পশ্চিম রাখালিয়া এলাকার পাটোয়ারী ভিলার সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে নামে। এসময় সুইপার সেখানে আটকা পড়েন। পরে বাড়ির মালিক রিয়াদ তাকে উদ্ধার করতে সেপটিক ট্যাংকে নামেন। সেপটিক ট্যাংকের ভেতরেই দুজন মারা যান। 

ধারণা করা হচ্ছে, ট্যাংকের ভেতরে অক্সিজেনের অভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

সোনাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিএম ইউছুফ জালাল কিছমত বলেন, রিয়াদ ছাড়া বাসায় কেউ ছিল না। সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে নেমে সুইপার আর উঠছিল না। একপর্যায়ে রিয়াদ দেখে সে পড়ে আছে। তাকে রক্ষা করতে গিয়ে রিয়াদও মারা গেছে। সেপটিক ট্যাংকের গ্যাসের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিন ফারুক মজুমদার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস এসে সেপটিক ট্যাংক ভেঙে লাউদ্ধার করেছে।

 

ইত্তেফাক/এনএন