রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মোরেলগঞ্জে অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে ১৬ জন হাসপাতালে

আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০২৪, ২০:২৯

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে দুই পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে মূল্যবান মালপত্র লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (২০ এপ্রিল) অজ্ঞান অবস্থায় দুই পরিবারের ১৬ জনকে উদ্ধার করে পাশের শরণখোলা উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের বানিয়াখালী গ্রামের হাবিবুর রহমান ওরফে তোতা মিয়া ও খেজুরবাড়িয়া গ্রামের গ্রাম পুলিশ নারায়ণ চন্দ্র গোমস্তার বাড়িতে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক পদার্থ মিশিয়ে রাখে দুর্বৃত্তরা। খাবার খেয়ে ওই দুই বাড়ির ৫ নারী, ৩ জন শিশুসহ ১৬ জন সদস্য ঘরের মধ্যে বিক্ষিপ্ত অবস্থায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকে। পরের দিন শনিবার সকালে প্রতিবেশিরা সবাইকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

শরণখোলা উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রিয় গোপাল বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

হাসপাতালে ভর্তি থাকা তোতা মিয়ার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন, তোতা মিয়ার ছেলে ফেরদৌস হাওলাদার, হাসান হাওলাদার, আশ্রাফুল ইসলাম, তিতাস হাওলাদার, আঁখি আক্তার ও নাঈম হোসেন। অন্যদিকে গ্রাম পুলিশ নারায়ণ চন্দ্র গোমস্তার পরিবারের মধ্যে রয়েছে তার স্ত্রী শ্যামলি রানী, পুত্রবধূ শান্তা  রানী ও ছোট ছেলে জীবন কুমার গোমস্তা। 

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীন বলেন, দুই বাড়ির কয়েকজনকে অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।    

ইত্তেফাক/ডিডি