রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সফিউদ্দীন শিল্পালয়ে রিপন কুমার দাসের একক চিত্র প্রদর্শনী

আপডেট : ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫:১৪

বৈচিত্র্যের অনুসন্ধানী এক চিত্রকর শিল্পী রিপন কুমার দাস। চারপাশের চেতনা জগৎ উঁকি দেয় এই চিত্রশিল্পীর চিত্রকর্মে।  শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) থেকে শফিউদ্দিন শিল্পালয় উদ্বোধন হতে যাচ্ছে শিল্পী রিপন কুমার দাস এর ৪ দিন ব্যাপী প্রথম একক চিত্র প্রদর্শনী, ‘ACCENT’

প্রদর্শনী চলবে ২৯ এপ্রিল, ২০২৪ পর্যন্ত প্রতিদিন সকালে ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিল্পী ও শিল্পানুরাগীদের জন্য উমুক্ত থাকবে।

রিপন কুমার দাস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগ থেকে সম্মানসহ ২০০০ সালের স্নাতকোত্তর উত্তীর্ণ। শিক্ষার্থী জীবনে জলরঙ ও তেলরঙ মাধ্যমের চিত্র এঁকে চারুকলার বার্ষিক চিত্র প্রদর্শনীতে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার অর্জনের কৃতিত্ব জমা হয়েছে তার ঝুলিতে। নিজে ছবি আঁকার পাশাপাশি ঢাকার এক ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়াচ্ছেন।

পুরনো ঢাকায় যাদের বসবাস তাদের মিলেমিশে থাকার রেওয়াজ এখনও অবশিষ্ট আছে। তাদের খাবারদাবারেও আছে নানা বৈচিত্র্যের সমাহার। ঘুড়ি উড়ানোসহ তাদের এমন কতক উৎসব আছে যে গুলো ব্যস্ত ঢাকাবাসীর হৃদয়কে রাঙিয়ে দেয়! প্রসঙ্গের অবতারণা হলো পুরনো ঢাকার সন্তান শিল্পী রিপন কুমার দাসের জলরঙ চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজনকে কেন্দ্র করে।

চারশতাধিক বছরের পুরনো নগরের ছোট ছোট গলিপথের দুইপাশে রঙবেরঙের পুরনো দরদালানের সারি, বৈদ্যুতিক খুঁটি আর তারের জঞ্জাল, টেলিফোন বিভাগের তারে বসে থাকা অজস্র কাক, নীচে দোকানপাট, রিকশা ও লোকজনের চলাচল। অনেক বছর ধরে এই দৃশ্যগুলো আমরা সরাসরি দেখে আসছি, তেমনই শিল্পীদের তেলরঙ, অ্যাক্রেলিক ও জলরঙ চিত্রেও প্রায় একই রকম বিষয়ের নানারূপের চিত্রায়ণ দেখতে পাচ্ছি। এর একটি কারণ হলো শিক্ষার্থী শিল্পীর অনুশীলনের জন্য পুরনো ঢাকার অলিগলি চষে বেড়াতে হয়, পুঁতিগন্ধময় বুড়িগঙ্গার তীরে যেতে হয়। এভাবে অনুশীলনের এক পর্যায়ে গলিপথ ওদের আঁকার অন্যতম বিষয় হয়ে ওঠে।

আশার কথা- দেশে সম্প্রতি তরুণশিল্পীদের মধ্যে জলরঙ চিত্রকলার অধিক চর্চা ও পসার দেখা যাচ্ছে। ঢাকায় আয়োজিত ইদানিংকালের অনেক প্রদর্শনীতেও জলরঙ ছবির আধিক্য ছিল। রিপন কুমার দাস নিজেও জলরঙ প্রসারে নিষ্ঠাবান সাধক হতে নিয়মিত নিজের চর্চা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর প্রামাণ্য ঢাকার ধানমণ্ডিতে সফিউদ্দিন শিল্পালয়ে তার বর্তমান একক চিত্র প্রদর্শনীতে দৃশ্যমান হবে।

ইত্তেফাক/এএইচপি