শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মন্দিরের রাস্তার জন্য কোটি টাকার জমি দান করলেন মুসলিমরা

আপডেট : ১৩ মে ২০২৪, ২০:১৯

ভারতের রাজনীতিতে এখন সবচেয়ে আলোচিত হিন্দ-মুসলিম সম্পর্ক। কেউ কেউ রাজনৈতিক স্বার্থে দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভাজন চেষ্টা করলেও দেশটিতে এক অনন্য নজির স্থাপন করে সম্প্রীতির বার্তা দিয়েছেন দুই মুসলিম যুবক। জম্মু-কাশ্মীরের রেয়াসি জেলায় ৫০০ বছরের পুরনো মন্দিরে যাওয়ার জন্য রাস্তা তৈরিতে জমি দান করেছেন তারা।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রেয়াসি জেলার খেরাল পঞ্চায়েতের গোলাম রসুল ও গোলাম মুহম্মদ নামের দুই ব্যক্তি ৫০০ বছরের পুরানো মন্দিরের রাস্তা নির্মাণের সুবিধার্থে তাদের চার কানাল জমি দান করেছেন। এই জমির আনুমানিক মূল্য ভারতীয় মুদ্রায় ১ কোটি রুপির (১ কোটি ৪০ লাখ টাকা) বেশি।

লোকসভা ভোটে আসন জিততে মরিয়া এক শ্রেণির নেতা যখন ভারতে ধর্মীয় মেরুকরণ করতে চাইছেন ঠিক তখনই সম্প্রীতির এই অনন্য নজির স্থাপন করেছেন তারা।

রেয়াসির জেলা প্রশাসক বিশেষ পাল মহাজন বলেন, ‘এইভাবে সমাজকে সম্পূর্ণ সম্প্রীতির দিকে পরিচালনার নেতৃত্ব দেওয়া উচিত। জমির বিষয়ে আমি বিস্তারি চেয়েছি। মন্দিরের রাস্তা নির্মাণ নিশ্চিত করতে প্রশাসন তহবিল সরবরাহ করবে।’

একজন রাজস্ব কর্মকর্তা বলেছেন, ‘রাজস্ব বিভাগ সমস্ত আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা ও রেকর্ডে এন্ট্রি করার পর কান্সি পাট্টা গ্রামে গুপ্ত কাশী-গৌরী শঙ্কর মন্দিরের জন্য ১০ ফুট চওড়া ১২০০ মিটার রাস্তা তৈরি করা হবে।’

গোলাম রসুল পঞ্চায়েতের সাবেক সদস্য। তিনি বলেন, কিছু ব্যক্তি রাস্তার সমস্যার জেরে বিশৃঙ্খলা তৈরি করার চেষ্টা করেছিল। আমরা ভেবেছিলাম মন্দিরের কোনো রাস্তা নেই। যদি আমাদের জমি দান করি তবে রাস্তাটি তৈরি করা যেতে পারে। এতে তীর্থযাত্রীদের উপকার হবে।’

পরবর্তীকালে, রসুল ও মোহাম্মদ রাজস্ব কর্মকর্তাদের কাছে তাদের সিদ্ধান্ত জানান। এ নিয়ে একটি সভা ডাকা হলে তারা উভয়েই রাস্তার জন্য জমি দান করার বিষয়ে সম্মত হন।

মন্দিরটিকে সাজানোর কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। মন্দির কর্তৃপক্ষ ওই এলাকায় আরও কিছু জমি পেয়েছেন। পাশাপাশি মিলেছে মুসলিম সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তির দান। সব মিলিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য নজির স্থাপিত হয়েছে কাশ্মীরের ছোট্ট গ্রামটিতে।

ইত্তেফাক/এসএটি