শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সৌদিতে প্রবাসী যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু, পরিবারের দাবি হত্যা

আপডেট : ২২ মে ২০২৪, ২২:০৪

সৌদি আরবের ক্যাবেট সিটি এলাকায় মাদারীপুরের শিবচরের সুমন নামের এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। প্রিয় মানুষটির মৃত্যুর খবর পেয়ে পরিবারজুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তবে পরিবারের দাবি, সুমনকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত শেষে দ্রুত লাশ দেশে আনার দাবি জানিয়েছেন পরিবার।

জানা যায়, উপজেলার উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের চর কমলাপুর গ্রামের মুদি দোকানি দাদন হাওলাদারের দুই ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে বড় সুমন হাওলাদার। পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা আনতে প্রায় ৫ বছর আগে সৌদি আরব পাড়ি জমায় সুমন। সৌদির ক্যাবেট সিটির মরুভূমি সাইট এলাকায় বসবাস করতো সুমন। 

সেখানে টেকনিশিয়ান হিসেবে এসির কাজ করতো সে। পরিবারে স্বচ্ছলতা আনতে সেখানে দিন রাত পরিশ্রম করতো সুমন। মঙ্গলবার বিকালে সৌদি আরব থেকে সুমনের পরিবারের কাছে খবর আসে সেখানে এসির কাজ করার সময় একদল ভুয়া পুলিশের তাড়া খেয়ে বহুতল একটি ভবনের ছাদ থেকে পড়ে সুমনের মৃত্যু হয়। আবার কেউ জানায় সুমন কয়েকজন বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিল এসময় পুলিশের তাড়া খেয়ে বহুতল ভবনের ছাদ থেকে পড়ে তার মৃত্যু হয়। সুমনের এই মৃত্যুকে রহস্যজনক উল্লেখ করে সুমনকে হত্যা করে ঘটনা ভিন্ন দিকে নেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তার পরিবার দাবি করেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে লাশ দ্রুত দেশে আনার দাবি জানিয়েছেন স্বজনরা।

নিহত সুমনের মামা আলফাজ গোমস্তা বলেন, আমরা সুমনের লাশের ভিডিওতে দেখেছি ওর মাথার এক পাশে একটি লম্বা কাটার দাগ রয়েছে। মুখের বা শরীরের অন্য কোথাও কোনো আঘাতের চিহৃ নেই বলেও জেনেছি। বহুতল ভবনের উপর থেকে নিচে পড়লে মুখমণ্ডলসহ শরীরের অনেক স্থানেই আঘাতের চিহৃ থাকার কথা। কিন্তু তা নেই। তাই আমাদের কাছে মনে হচ্ছে সুমনকে হত্যা করে ঘটনা ভিন্ন খাতে নেওয়ার চেষ্টা চলছে। তাই সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের দাবি করছি।

নিহত সুমনের মা বানু বেগম বলেন, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা উন্মোচন করা হোক। আর আমার নয়নের মনির লাশটি দ্রুত দেশে আনার দাবি করছি।

ইত্তেফাক/পিও