মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফের উন্নত প্রতিরক্ষাব্যবস্থা চাইলেন জেলেনস্কি

  • হামলা আরো তীব্র করেছে রাশিয়া, খারকিভে চার জন নিহত
  • পুলিশের সহায়তায় পালাচ্ছে মানুষ
  • বৈঠক করলেন পুতিন-কাদিরভ
  • ইউক্রেনে আরো সেনা পাঠানোর প্রস্তাব
আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ০৫:০৯

রুশ ‘গাইডেড বোমা’ হামলা থেকে ইউক্রেনের শহরগুলোকে রক্ষার জন্য উন্নত প্রতিরক্ষাব্যবস্থা দরকার বলে জানিয়েছেনে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। দেশটিতে হামলা করতে ‘প্রধান অস্ত্র’ হিসেবে এখন ‘গাইডেড বোমা’ ব্যবহার করছে রাশিয়া। তাই উন্নত প্রতিরক্ষাব্যবস্থা সরবরাহের জন্য পশ্চিমা মিত্রদের কাছে নতুন করে আবেদন জানান তিনি। এদিকে ইউক্রেনে হামলা আরো তীব্র করেছে রাশিয়া, খারকিভে বোমা হামলায় চার জন নিহত। পুলিশের সহায়তায় পালাচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। অন্যদিকে ইউক্রেনে আরো সেনা পাঠানোর প্রস্তাব নিয়ে বৈঠক করলেন পুতিন-কাদিরভ।

দীর্ঘদিন ধরেই উন্নত বিমান প্রতিরক্ষাব্যবস্থার আহ্বান জানিয়ে আসছেন জেলেনস্কি। কেননা, রুশ বাহিনী দেশটির জ্বালানি ও অন্যান্য অবকাঠামোর ওপর হামলা আরো জোরদার করেছে, যা প্রতিহত করার মতো প্রয়োজনীয় প্রতিরক্ষাব্যবস্থা ইউক্রেনের নেই। তবে ইচ্ছাকৃতভাবে বেসামরিক স্থাপনাগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করার কথা অস্বীকার করেছে রাশিয়া। যদিও ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে দেশটির বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে হাজার হাজার মানুষ হতাহত হয়েছে। রাতের নিয়মিত ভিডিও ভাষণে ইলেকট্রনিক অস্ত্র তৈরিতে ইউক্রেনের অগ্রগতির কথা জানান জেলেনস্কি। তবে রুশ ‘গাইডেড বোমা’ প্রতিরোধে দেশটির আরো অনেক কিছুই করা বাকি আছে। তিনি বলেন, প্রতিরক্ষাব্যবস্থার কোনো বিকল্প হতে পারে না। ইউক্রেনের এমন ব্যবস্থা ও কৌশল দরকার, যা এই গাইডেড বোমা থেকে আমাদের অবস্থান, শহর এবং লোকজনকে রক্ষা করতে পারি। চলতি মাসের শুরুর দিকে জেলেনস্কি বলেছিলেন, এপ্রিল জুড়ে ইউক্রেনের লক্ষ্যবস্তুতে ৩ হাজার ২০০টিরও বেশি ‘গাইডেড বোমা’ নিক্ষেপ করেছে রাশিয়া। তখন ৩০০টির বেশি ক্ষেপণাস্ত্র ও প্রায় ৩০০টি শাহেদ ধরনের ড্রোনও ব্যবহার করেছিল দেশটি।

এদিকে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভে সরাসরি হামলা করেছে রুশ বাহিনী। ইউরো নিউজ তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রাশিয়ানরা খারকিভ শহরে দুটি গ্লাইডার বোমা দিয়ে হামলা চালিয়েছে। জানা যায়, হামলায় কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছে। শহরের উত্তরে একটি আবাসিক এলাকায় একটি বোমা বিস্ফোরিত হয়, এতে ১১ জন আহত, আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত এবং একটি কার ওয়াশ-ক্যাফে সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে যায়। এছাড়া শহরের পশ্চিমে আরেক হামলায় এক নারী গুরুতর আহত হয়। অঞ্চলটির আঞ্চলিক গভর্নর ওলেগ সিনেগুবভেরের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, এই হামলায় চার জন নিহত হয়েছেন। এর দুদিন আগে খারকিভের সীমানায় একটি ব্যস্ত রিসোর্টে রাশিয়া হামলা চালালে ১১ জন নিহত হয়। ঐ সময় ঐ অঞ্চলের কয়েকটি গ্রামেও হামলা চালায় রুশ বাহিনী। সে সময় ৯ হাজার ৯০৭ জনকে ঐ অঞ্চল থেকে সরিয়ে নেওয়ার কথা জানান সিনেগুবভের। 

চলতি মাসের মাঝামাঝি ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভ থেকে ৭৪ কিলোমিটার দূরে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্ত শহর ভোভচানস্কে ঢুকে পড়ার দাবি করে রুশ বাহিনী। সীমান্ত এলাকায় আকস্মিক হামলা চালিয়ে ৯টি গ্রাম দখলে নেয় তারা। গত দুই সপ্তাহ ধরে দুই পুলিশ কর্মী ইয়েফারভ ও তার সহকর্মী ইয়ারেমচুকের খারকিভের উত্তরের জায়গাগুলো থেকে মানুষকে সরিয়ে আনার কাজে ব্যস্ত। গত ১০ মে থেকে রাশিয়া ইউক্রেনের সীমানায় নতুন করে আক্রমণ শুরু করেছে বলে ইউক্রেন সরকার জানিয়েছে। কয়েকটি গ্রামও তারা দখল করে নিয়েছে। তারপর থেকে দুই পুলিশ কর্মীর ব্যস্ততা অনেক বেড়েছে। ইয়েফারভ বলেন, এখন লড়াই চলছে বলে ঐ জায়গাগুলোতে বসবাস করা বিপজ্জনক। রাশিয়া সমানে আবাসিক এলাকায় গোলা ফেলছে। ক্ষেপণাস্ত্র হামলাও চলছে। ইউক্রেনে নতুন অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। এদিকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন রাশিয়ার চেচনিয়া অঞ্চলের নেতা রমজান কাদিরভ। গতকাল বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানান কাদিরভ নিজেই। তিনি বলেন, বৈঠকে ইউক্রেনে দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে চলমান সংঘাত নিয়ে কথা বলেছেন তারা।

ইত্তেফাক/এসটিএম