মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ইউক্রেনকে ১২৩ কোটি ডলারের অস্ত্র দেবে স্পেন

পূর্ব ইউক্রেনে দুটি গ্রাম দখলের দাবি রাশিয়ার

আপডেট : ২৮ মে ২০২৪, ০৯:৪১

গত মাসে ঘোষিত ১২৩ কোটি ডলার অস্ত্র প্যাকেজের অংশ হিসেবে ইউক্রেনকে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ও লেপার্ড ট্যাংক পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে স্পেন। সোমবার এমনটাই জানিয়েছে স্প্যানিশ দৈনিক পত্রিকা এল পাইস। এই পরিকল্পনা সম্পর্কে পরিচিত একটি ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে এই তথ্য জানিয়েছে পত্রিকাটি। এদিকে পূর্ব ইউক্রেনে আরো দুটি গ্রাম দখলের দাবি করেছে রাশিয়া।

এল পাইস বলেছে, ইউক্রেনকে প্রায় এক ডজন প্যাট্রিয়ট অ্যান্টি-এয়ারক্রাফ্ট মিসাইল, ১৯টি সেকেন্ড-হ্যান্ড জার্মান-নির্মিত লেপার্ড ট্যাংক হস্তান্তর করবে স্পেন। এছাড়াও অন্যান্য স্পেন নির্মিত অস্ত্র, যেমন: অ্যান্টি-ড্রোন গিয়ার এবং গোলাবারুদও দেবে স্পেন।

সোমবার মাদ্রিদ সফরে যাওয়ার কথা ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির। সফরকালীন প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ এবং রাজা ফিলিপের সঙ্গে দেখা করবেন তিনি। এসময়ই নতুন অস্ত্র সরবরাহের প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করবে স্পেন। গত মাসেই ইউক্রেনের জন্য ১২৩ কোটি ডলারের অস্ত্র প্যাকেজের অনুমোদন দেয় স্প্যানিশ সরকার। তবে এই প্যাকেজে কোন কোন অস্ত্র থাকবে তা নির্দিষ্ট ছিল না। অবশ্য এ বিষয়ে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন পেদ্রো সানচেজের মুখপাত্র।

এদিকে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে দুটি গ্রাম দখলের দাবি করেছে রাশিয়া। সোমবার রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এই দাবি করে। তাদের দাবি অনুসারে,  দোনেত্স্ক অঞ্চলে একটি ও খারকিভে আরেকটি গ্রাম দখল করেছে রুশ সেনারা। দৈনিক ব্রিফিংয়ে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, দোনেত্স্ক অঞ্চলে নেটাইলাভ গ্রাম ও খারকিভ অঞ্চলে আইভানিভকা গ্রাম মুক্ত করেছে রুশ সেনারা। রাশিয়া ইউক্রেনে কোনো গ্রাম বা শহর দখল করলে সেগুলো মুক্ত করা হয়েছে বলে দাবি করে। রুশ সেনাদের গ্রাম দুটি দখলের দাবি ইউক্রেনে বাহিনীটির সাম্প্রতিক ভূখণ্ড দখলের সর্বশেষ অগ্রগতি। দুই সপ্তাহ আগে খারকিভে বড় ধরনের স্থল অভিযান শুরু করে রাশিয়া। যদিও সোমবার দখলের দাবি করা গ্রামটি রণক্ষেত্রের আরো পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত। গত কয়েক মাস ধরে সেখানে লড়াই চলছে। মার্কিন অস্ত্র হাতে পেতে অপেক্ষমাণ ইউক্রেনীয় সেনাদের বিরুদ্ধে রণক্ষেত্রে সুযোগ কাজে লাগাতে চাইছে তারা। ইউক্রেনীয় সেনাদের অস্ত্রের ঘাটতি দেখা দেওয়ার সুযোগে রণক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে তারা।

রুশ সেনাদের দখলকৃত ভূখণ্ড পর্যালোচনার ভিত্তিতে এএফপি জানিয়েছে, গত ১৮ মাসের মধ্যে খারকিভে রুশ সেনাদের অগ্রগতি সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য।  খারকিভে দ্রুত সামরিক শক্তি বাড়িয়েছে ইউক্রেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সতর্ক করে বলেছেন, রাশিয়ার গ্রীষ্মকালীন আক্রমণের প্রথম ধাপ হতে পারে খারকিভের স্থল অভিযান।

ইত্তেফাক/এএইচপি