বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

আইপিএল খেলা মোস্তাফিজই টিকে রইলেন

শরিফুলের বাঁ-হাতে ছয় সেলাই

আপডেট : ০৩ জুন ২০২৪, ১১:১৬

চলতি বছরের শুরু থেকেই টাইগারদের পরিকল্পনা ছিল যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘিরে। এর মধ্যে আইপিএলে খেলার প্রস্তাব পান টাইগার তারকা তিন পেসার তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান। সে সময় শুধু ফিজকেই খেলতে যাওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হয়। বিশ্বকাপের আগে বাকি দুই পেসারকে ফ্রাঞ্চাইজি লিগে পাঠিয়ে চোটের ঝুঁকি নিতে চাইছিল না ক্রিকেট বোর্ড। 

অথচ বিশ্বকাপের মূল পর্বের খেলার আগে যাদের নিয়ে এত পরিকল্পনা, সেই দুই পেসারই চোটে আক্রান্ত হয়ে মাঠের বাইরে চলে গেল। টিকে রইল আইপিএল দাপিয়ে আশা মোস্তাফিজই। এতে করে ব্যাটিং-ফিল্ডিংয়ের ব্যর্থতার চিন্তার পাশাপাশি এখন বোলিং ডিপার্টমেন্ট নিয়েও আলাদা করে ভাবতে হবে দলকে।

গতকাল ভোরে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠেছে নবম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। এর আগে এ দিনই (বাংলাদেশ সময় শনিবার রাতে) শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে চোটের কারণে বাইরে ছিল তাসকিন আহমেদ। তো তাকে ছাড়া বাকি ১৪ ক্রিকেটারের স্কোয়াড নিয়েই গা গরম করতে নামে শান্তরা। 

তবে এ ম্যাচে নিজের ও ইনিংসের  শেষ ওভারের পঞ্চম বলে হার্দিক পান্ডিয়ার বিপক্ষে ফিরতি বল ঠেকাতে গিয়ে বাঁ-হাতে চোট পান বর্তমান টাইগার দলের তারকা পেসার শরিফুল ইসলাম। তাতে শেষ বল না করেই মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। ম্যাচের পর অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত জানিয়েছিলেন, পর্যবেক্ষণে আছেন শরিফুল। পরবর্তীকালে জানা যায়, হাতে ছয়টি সেলাই পড়েছে শরিফুলের। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি ছিটকে গেছেন সপ্তাহ দুয়েকের জন্যে।  এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপের নিজেদের প্রথম ম্যাচে তাকে পাচ্ছে না শান্তরা, দ্বিতীয় ম্যাচে পাওয়া নিয়েও রয়েছে শঙ্কা।

রবিবার শরিফুলের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে দলের সঙ্গে থাকা বিসিবির প্রধান চিকিত্সক দেবাশিষ চৌধুরী সবশেষ অবস্থা জানিয়ে এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ চলাকালীন নিজের শেষ ওভারে ফিরতি বল ঠেকাতে গিয়ে বাম হাতের তর্জনী ও মধ্যমার সংযোগস্থলে চোট পান শরিফুল। মাঠে তাত্ক্ষণিক পরিচর্যার পর ম্যাচ শেষে তাকে নিকটস্থ নাসাউ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে হাতের সার্জনের তত্ত্বাবধানে তার হাতে একটি ছোট সার্জারি করা হয়। হাতে ছয়টি সেলাই করা হয়েছে। তো আমরা দুই দিন পর ড্রেসিং পালটানোর জন্য আবার সার্জনের কাছে যাব। তখন আসলে বুঝতে পারব মাঠে ফেরার জন্য কতদিন সময় লাগবে।’

বর্তমানে দলের ব্যাটিং ও ফিল্ডিং ডিপার্টমেন্টের ব্যর্থতার মধ্যে বোলিং ডিপার্টমেন্টটাই শান্তদের আশার জায়গা। সেখানে শরিফুল অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি নাম। সে কথা ভালোভাবেই জানে বোর্ড। তাই তাকে দ্রুত মাঠে ফেরাতে যা যা করা প্রয়োজন, তাই করবে বলে জানিয়েছে বিসিবির প্রধান চিকিত্সক। এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘দলে শরিফুলের গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে আমরা ওর চিকিত্সার ব্যাপারে সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করছি। যেন ও নিরাপদে তাড়াতাড়ি খেলায় ফিরে আসতে পারে।’

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগামী শনিবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৬টায়। আর শরিফুলের বর্তমান অবস্থা অনুসারে ধারণা করাই যায় বিশেষ অলৌকিক কিছু না ঘটলে প্রথম ম্যাচে তাকে পাওয়া যাবে না বলে। পাশাপাশি দ্বিতীয় ম্যাচে অর্থাৎ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও তাকে পাওয়া নিয়ে থেকে যাবে শঙ্কা। এছাড়া অনিশ্চয়তা থাকছে দলের তারকা পেসার তাসকিন আহমেদকে পাওয়া নিয়েও। যদিও শোনা যাচ্ছিল তাসকিনকে প্রথম ম্যাচ থেকেই পাওয়া যাবে মূল একাদশে। 

এর আগে আগামী বুধবার পূর্ণ রান আপে বোলিংয়ে ফেরার কথা অভিজ্ঞ পেসারের। এরপর সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে ম্যাচ খেলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে ব্যতিক্রম মোস্তাফিজ। ভারতে আইপিএল খেলে এসে ঘরের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ দুই ম্যাচ খেলেন। এছাড়া পরবর্তীকালে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের সব ম্যাচ খেলেছেন। যদিও গেল পরশু ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন তিনি কিন্তু দলের সঙ্গেই ছিলেন তিনি। এত সব ম্যাচ খেলেও মোস্তাফিজ এখনো ফিট আর যাদের নিয়ে বিসিবির পরিকল্পনা ছিল তারাই চোট নিয়ে লড়ছে মাঠে ফেরার জন্য।

  

ইত্তেফাক/জেডএইউচ