শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

‘বুড়ো’ রোহিতের মনে পড়বে সেই দিনের কথা?

আপডেট : ০৫ জুন ২০২৪, ১০:৪৯

নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে ভারতের বিশ্বকাপ যাত্রা। আজ রাত সাড়ে ৮টায় রোহিত শর্মার দল খেলবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। এই বিশ্বকাপের আগে ২০০৯ সালে ট্রেন্ট ব্রিজে দেখা হয়েছিল ভারত-আয়ারল্যান্ডের। ম্যাচটিতে আট উইকেটে জিতেছিল ভারত। সেই ম্যাচে খেলা একমাত্র ক্রিকেটার রোহিত এখনো লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।

প্রায় ১৫ বছর পরে তিনি আবারও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আইরিশদের বিপক্ষে নামবেন। ৫ হাজার ৪৭৪ দিন আগের সেই ম্যাচে যারা খেলেছিলেন, রোহিত বাদে তাদের কেউ এখন জাতীয় দলে নেই। ৩৭ বছর পার করা ভারতীয় দলপতি এবার সেই পুরোনো স্মৃতি আবার ফেরাবেন? ম্যাচটিতে ৪৫ বলে ৫২ রান করে  জয়ের পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন এই ওপেনার। এবারও করতে পারবেন তেমন কিছু? করতে পারলে হয়তো ১৫ বছর আগেই ফিরে যাবেন রোহিত।

এদিকে নিউ ইয়র্কের মাঠটি নতুন হলেও এখানে সুখস্মৃতি রয়েছে ভারতের। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে তারা বাংলাদেশকে এই মাঠেই হারিয়েছে চার দিন আগে। ফলে কন্ডিশন অনেকটাই রোহিত বাহিনীর নখদর্পণে রয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও শ্রীলঙ্কা-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচের সুবাদে একটি অলিখিত বার্তাও থাকবে। কল্পিত সেই বার্তায় লেখা থাকবে, ‘সাবধান, সামনে বিপদ আছে।’ কারণ শ্রীলঙ্কার যেভাবে কুপোকাত দশা হয়েছিল এই মাঠে, সেটি ছিল শোচনীয়। মাত্র ৭৭ রানে গুটিয়ে যেতে হয়েছে লায়নদের। সেই রান তাড়া করতে গিয়ে কম বিপদে পড়েনি প্রোটিয়ারাও। সেজন্য মাঠটি নিয়ে বিশেষ চিন্তা থাকবে ভারতের।

প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৮২ রান করেছিল ভারত। জবাবে টাইগার বাহিনী গুটিয়েছে ১২২ রানে। সেই মাঠে শত রানের নিচে তোলাই যেন অসম্ভব বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল শ্রীলঙ্কা-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচে। হুট করে নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামের সেই অনাকাঙ্ক্ষিত আচরণে অবাকও হয়েছেন ভক্তরা। কাগজে কলমে আয়ারল্যান্ড অনেক পিছিয়ে রয়েছে ভারত থেকে। কিন্তু পিচের যে অবস্থা তাতে পচা শামুকে পা কাটার শঙ্কাও রয়েছে। পদে পদে অনিশ্চয়তা থাকবে সেখানে। যেখানে ভারতীয়দের অভিজ্ঞতা ও শক্তি খর্ব হয়ে যেতে পারে। ভারত-আয়ারল্যান্ড এখন পর্যন্ত সাত বার টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে কোনো ম্যাচে আইরিশরা জয় পায়নি। এর বাইরেও অন্যান্য পরিসংখ্যান রোহিতদের যোজন যোজন এগিয়ে রাখবে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া থেকে আনা ড্রপ-ইন পিচ বদলে দিতে পারে সব সমীকরণ। আবার ভারত স্টেডিয়ামটিতে দেখা ও খেলার অভিজ্ঞতা অর্জন করলেও আয়ারল্যান্ডের সেই সুযোগ হয়নি। তারা প্রথম বারের মতো আজই মাঠে প্রবেশ করবেন। ম্যাচটির আগে আইরিশ অধিনায়ক পল স্টার্লিং বলেছেন, ‘আমরা আসলে মাঠটি দেখিনি। অবস্থা এখন এমন, খেলার আগে ছাড়া সেখানে যাওয়া হচ্ছে না। খেলার দিনই প্রথম বারের মতো এই মাঠ আমরা দেখব।’

ইত্তেফাক/এএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন