শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ভালো-খারাপ সময়ে শিক্ষণীয় বিষয় থাকে: রিয়াদ

আপডেট : ০৬ জুন ২০২৪, ১১:৩০

দেশের টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড থেকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে প্রায় বাদের হিসাবেই রাখা হয়েছিল। তাতে ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগ থেকে গেল বছর পুরোটা তিনি ছিলেন এই ফরম্যাট থেকে বাইরেই। পাশাপাশি ব্যাটিংয়ে ধারাবাহিক ব্যর্থ হওয়ায় ওয়ানডে ফরম্যাটেও জায়গা পাচ্ছিলেন না টাইগার স্কোয়াডে। ধারণা করা হচ্ছিল, তারকা এই অলরাউন্ডারের হয়তো জাতীয় দলের গল্পটার সমাপ্তি হতে চলেছে। তবে তা হয়নি, রিয়াদ ফিরেছেন। 

আর এমনভাবেই ফিরেছেন যে ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও শান্তর দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে তাকে বিবেচনা করা হচ্ছে। আর এসব কিছু নিয়েই বিশ্বকাপে অংশ নেওয়ার আগে বিসিবির ডিজিটাল প্ল্যাটফরমের আয়োজনে ‘গ্রিন রেড স্টোরিজে’ কথা বলেছিলেন। সেটাই গতকাল প্রকাশ পেয়েছে। ওখানেই রিয়াদ জানিয়েছেন যে ভালো সময়ে কিংবা খারাপ সময়ে তিনি শিক্ষণীয় বিষয় খোঁজেন।

এর আগে ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বে খেলতে যায় বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্ব কোনো রকমে পার করলেও মূল পর্বের (সুপার টুয়েলভস) সব ম্যাচ হেরে যায়। পরবর্তী বছরে খেলেন এই ফরম্যাটে অনুষ্ঠিত হওয়া এশিয়া কাপও। তবে পারফরম্যান্সের অবনতিতে সুযোগ হয়নি পরের বছর ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। এরপর থেকে কুড়ি ওভারের এই ফরম্যাট থেকেই হারিয়ে যান তিনি। তবে চলতি বছর থেকে ফের নিয়মিত এই ফরম্যাটে দেখা যাচ্ছে তাকে, আর এসব ম্যাচে পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়ে এক আসর পর ফের জায়গা পেয়েছেন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে। 

এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘সংগ্রাম তো আমার ক্যারিয়ার জুড়েই কম-বেশি ছিল। আমি সব সময়ই আল্লাহ?র ওপর বিশ্বাস করি। আল্লাহ?র কাছেই সব সময় আমার যা কিছু বলার আমি বলি। সব সময় বিশ্বাস করি, আল্লাহ?র পরিকল্পনা সর্বোত্তম। ভালো সময়, খারাপ সময়, সবকিছুরই একটা শিক্ষণীয় বিষয় থাকে এটাই বিশ্বাস করি। যখন আমি ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছিলাম না, আমার কাছে খুবই খারাপ লেগেছিল। মনে হয়েছিল, আমি দলে থাকতে পারতাম। কিন্তু কোনো কারণে হয়নি। সেটার জন্য আমার কোনো আফসোসও নেই। সব সময় যেটা বলি যে দলের জন্য যতটুকুই অবদান রাখতে পারি, নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে হোক অথবা মাঠে উপস্থিত থেকে অভিজ্ঞতা দিয়ে হোক, দিতে চাই। সব সময় নিজের সর্বোচ্চটাই নিংড়ে দেই।’

মাহমুদউল্লাহর লাল-সবুজের জার্সি গায়ে চাপিয়ে মাঠ দাপানোর বয়স প্রায় দেড় যুগ। এ সময় তিনি বাংলাদেশের হয়ে সাত ফাইনাল খেলেছেন। যদিও জয় পায়নি কোনোটিতেই। তাই তার ভালো করেই জানা খুব কাছে গিয়েও শিরোপা ছুঁতে না পারার আফসোসটা। তবে অতীতের ব্যর্থতা ভুলে এবার সামনে তাকাতে চান রিয়াদ। তার মতে, যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে শুরু হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আরেকটি সুযোগ আসছে বাংলাদেশের সামনে। বলেন, ‘ট্রফি জিনিসটা আমার মনে হয় যে, অবশ্যই একটু ভাগ্যেরও সাহায্য লাগে। আমরা কয়েকটা ইভেন্টে খুব কাছাকাছি গিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনক, আমরা পারিনি। তবে আমাদের জন্য একটি সুযোগ রয়েছে বিশ্বকাপে। আমাদের সমর্থন করুন, বিশ্বকাপে যা সম্ভব সবই করব আমরা।’

ইত্তেফাক/জেডএইউচ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন