শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ 

সুপার ওভার রোমাঞ্চে শেষ হাসি যুক্তরাষ্ট্রের 

আপডেট : ০৭ জুন ২০২৪, ০১:৫০

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দ্বিতীয়বারের মতো ম্যাচ গড়িয়েছে সুপার ওভারে। নামিবিয়া-ওমান ম্যাচের পর এবার সুপার ওভারে গড়িয়েছে পাকিস্তান-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ম্যাচ। যেখানে শেষ হাসি হেসেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ে বিশ্বকাপ টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।   

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) ডালাসের গ্র্যান্ড প্রেইরি স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে পাকিস্তান।

বাবর আজম ও শাদাব খানের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। আর শেষ দিকে ইফতিখার আহমেদের ১৪ বলে ১৮ ও শাহিন আফ্রিদির ১৬ বলে ২৩ রানে চোট্ট ক্যামিওতে ভর করে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। শাদাব ২৫ বলে ৪০ ও বাবর ৪৩ বলে ৪৪ রান করেন। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে সৌরভ নেত্রাভালকার নেন ৩টি উইকেট।  

১৬০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন দুই মার্কিন ওপেনার স্টিভেন টেইলর ও মোনাঙ্ক প্যাটেল। উদ্বোধনী জুটিতে ৩৬ রান যোগ করেন এই দুই ওপেনার। তবে ১৬ বলে ১২ রান করে ফিরে যান টেইলর।

এরপর ক্রিজে আসা অ্যান্ড্রিস গাউসকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন মোনাঙ্ক। ৬৮ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটার। সাবলীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন মোনাঙ্ক। এই দুই ব্যাটারের ব্যাটে জয়ের পথেই ছিল যুক্তরাষ্ট্র।

এরপর দ্রুতই জোড়া উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। গাউস ২৬ বলে ৩৫ ও মোনাঙ্ক ৩৮ বলে ৫০ রান করে আউট হন। তাদের বিদায়ের পর রানের চাকা সচল রাখেন অ্যারন জোন্স ও নিতিশ কুমার।

শেষ বলে জয়ের জন্য ৫ রান প্রয়োজন হয় যুক্তরাষ্ট্রে। সেই বলে চার মেরে ম্যাচ সুপার ওভারে নিয়ে যান নিতিশ। জোন্স ২৬ বলে ৩৬ ও নিতিশ ১৪ বলে ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন। 

সুপার ওভারে বাজে বোলিং করেন মোহাম্মদ আমির। তিনটি ওয়াইড দেন তিনি। সুপার ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ১৮ রান সংগ্রহ করে যুক্তরাষ্ট্র। ১৯ রানের টার্গেটে ব্যাট প্রথম দুই বলে এক চারের সাহায্যে পাঁচ রান সংগ্রহ করেন ইফতিখার আহমেদ। তৃতীয় বলে এই ব্যাটারকে সাজঘরে ফেরান সৌরভ নেত্রাভালকার।

ইফতিখারের বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন শাদাব খান। শেষ বলে জয়ের জন্য ৭ রান প্রয়োজন হয় পাকিস্তানের। শেষ বলে মাত্র ১ রান নিতে সক্ষম হয় পাকিস্তান। ফলের জয়ের আনন্দে মেতে ওঠে যুক্তরাষ্ট্র।      

ইত্তেফাক/জেডএইউচ