বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

চোখ ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ২৩:২৩

রাজনৈতিক উত্তেজনার কারণে কোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজে মুখোমুখি হয় না প্রতিবেশী দুই দেশ ভারত-পাকিস্তান। তবে গোটা বিশ্বের ক্রিকেট সমর্থকরা আগ্রহ নিয়ে বসে থাকে এই দুই দলের লড়াই দেখতে। যা কিনা এখন শুধু দেখা যায় আইসিসির বৈশ্বিক কোনো টুর্নামেন্টে। ক্রিকেট সমর্থকদের কথা মাথায় রেখে বিগত কয়েক বছর ধরেই বিশ্বক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ভারত-পাকিস্তানকে একই গ্রুপে রেখে আসর সাজায়। যাতে তাদের মাঠের দ্বৈরথ উপভোগ করতে পারে ক্রিকেটপ্রেমীরা। তার ব্যতিক্রম হয়নি চলমান নবম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও।

প্রতিবারই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে ঘিরে সবমহলে কাজ করে বাড়তি উত্তেজনা। এই তালিকায় বাদ যান না খোদ ক্রিকেটাররাও। সব মিলিয়ে আইসিসির ইভেন্টে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ধরা হয় সবচেয়ে হাইভোল্টেজ কিংবা গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। যার কারণে এই দুই দলের ম্যাচের টিকিটের চাহিদাও থাকে অন্য ম্যাচগুলোর থেকে অনেক বেশি। সেই সঙ্গে এই দুই দলের মহারণ মাঠে বসে উপভোগ করতে হলেও দর্শকদের গুনতে হয় বাড়তি অর্থ। অনেকে বাড়তি অর্থ দিয়েও পাচ্ছেন না এই ম্যাচের টিকিট। 

আগামীকাল বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এই মাঠের উইকেট নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলমান। কেননা এই মাঠে খুব একটা রান হচ্ছে না। এখন পর্যন্ত এই উইকেটে অনুষ্ঠিত হওয়া দুটি ম্যাচেই ব্যাটারদের অসহায় আত্মসমর্পণ করতে দেখা গিয়েছে। আইসিসিও খুশি নয় এমন উইকেট নিয়ে। তাই উইকেটটি ক্রিকেটবান্ধব করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বলে গত পরশু রাতে এক বিবৃতি প্রকাশ করে আইসিসি। 

সেই বিবৃতিতে বলা হয়, নিউ ইয়র্কের এই পিচগুলোতে বড় রানের উইকেট তৈরি করার জন্য কাজ চলছে। এবারের আসরে এখন পর্যন্ত একটি করে ম্যাচ খেলেছে ভারত ও পাকিস্তান। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ভারত জয় পেলেও স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হেরে শেষ আটে খেলার দৌড়ে পথটা খানিকটা কঠিন করে নিয়েছেন বাবর আজমের দল। দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলার টিকিট নিশ্চিত করতে হলে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই পাকিস্তানের সামনে। 

তাই এমন মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের ওপর নজর থাকবে গোটা ক্রিকেট বিশ্বের। তবে ভারত যে পাকিস্তানকে ছেড়ে কথা বলবে না। সেটা এই দুই দলের পরিসংখ্যান দেখলেই আঁচ করা যায়। কেননা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত মোট সাত বার মুখোমুখি হয় এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। সেসব দেখায় ভারতের ৫ জয়ের বিপরীতে পাকিস্তানের জয় মাত্রটি একটি ম্যাচে। এছাড়াও বাকি একটি ম্যাচ ড্র হয়।

ইত্তেফাক/জেডএইউচ